বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

সুতোর বদলে এলো বালি

অক্টোবর ৯, ২০১৯ | ৮:১১ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: পোশাক কারখানার জন্য সুতো আমদানির ঘোষণা দেওয়া একটি কনটেইনারে বালি পেয়েছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। বালিভর্তি কনটেইনারটি চট্টগ্রাম বন্দর থেকে খালাসের সময় আটক করা হয়। ঘোষণা বহির্ভূতভাবে বালি এনে বিপুল পরিমাণ টাকা পাচার করা হয়েছে বলে ধারণা কাস্টমস কর্মকর্তাদের।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রাম বন্দরের ‘ওভারফ্লো ইয়ার্ড’ থেকে কনটেইনারটি আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাস্টমসের উপ-কমিশনার নুরউদ্দিন মিলন।

কাস্টমস কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গাজীপুর জেলার মির্জাপুর এলাকার এন জেড এক্সেসরিজ লিমিটেড নামে একটি টেক্সটাইল কারখানা এক্সিম ব্যাংকের গুলশান শাখায় চীন থেকে ৩২ হাজার ১০ ডলার সমমূল্যের পলিস্টার আমদানির জন্য ঋণপত্র খুলেছিল। চীনের জিংতাই ইয়ামিঝি টেক্সটাইল কোম্পানি লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে পলিস্টার কেনার ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর ঘোষণা অনুযায়ী কনটেইনার নিয়ে এমভি থর্সউইন্ড নামে একটি জাহাজ চট্টগ্রাম বন্দরে আসে। এন জেড এক্সেসরিজ চট্টগ্রাম নগরীর আগ্রাবাদের কালকিনি কমার্শিয়াল এজেন্সিস লিমিটেড নামে একটি সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠানকে তাদের আমদানি করা সুতোর কনটেইনার খালাসের দায়িত্ব দেয়। বুধবার দুপুরে কনটেইনারটি চট্টগ্রাম বন্দরের ইয়ার্ড থেকে বের করা হচ্ছিল।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপ-কমিশনার নুরউদ্দিন মিলন সারাবাংলাকে বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা বন্দরের ইয়ার্ডে গিয়ে কনটেইনারটি আটক করি। সেখানে তল্লাশিতে সূতার পরিবর্তে আমরা বালি পাই। আমদানির নামে বিপুল পরিমাণ টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে বলে আমাদের ধারণা। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।’

সারাবাংলা/আরডি/ একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন