বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ২ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে কাশ্মির

অক্টোবর ১০, ২০১৯ | ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

দুই মাস বন্ধ থাকার পর পর্যটকদের জন্য আবার খুলে দেওয়া হচ্ছে কাশ্মির। সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাবনায় পর্যটকদের আসা যাওয়া  বন্ধ করে দেওয়া অঞ্চলগুলোতে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) থেকে পুনরায় স্বাভাবিক চলাফেরা করা সম্ভব হচ্ছে। গভর্ণরের বরাতে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় দৈনিক দ্য হিন্দুস্থান টাইমস।

বিজ্ঞাপন

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের এই সিদ্ধান্ত এসেছে, সোমবার (৭ অক্টোবর) নিরাপত্তা পরিস্থিতি সংক্রান্ত এক সভার মাধ্যমে। ওই নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সভায় উপস্থিত ছিলেন জম্মু ও কাশ্মিরের গভর্ণর সত্য পাল মালিক, নিরাপত্তা বিভাগের মুখ্য সচিব এবং অন্যান্য নিরাপত্তা উপদেষ্টাবৃন্দ।

এর আগে, আগস্ট মাসে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করার মাধ্যমে কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করে নেওয়ার একদিন আগে থেকেই কর্তৃপক্ষ এ অঞ্চলের পর্যটকদের এলাকা ছেড়ে যাওয়ার নির্দেশনা দেয়। তারা অমরনাথ যাত্রা বাতিল ঘোষণা করে, এখানে অংশ নেওয়া পূন্যার্থী এবং সাধারণ পর্যটকদের সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাবনার কথা বলে দ্রুত কাশ্মির ত্যাগ করতে বাধ্য করে।

তারপর থেকে জম্মু ও কাশ্মিরে জরুরি অবস্থা জারি করে রাখার মাধ্যমে কার্যত সারা দুনিয়া থেকে এই অঞ্চলকে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। স্কুল, কলেজ, অফিস, আদালত, ইন্টারনেটসহ জীবন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন জরুরি সেবা বন্ধ ছিল কাশ্মিরে।

বিজ্ঞাপন

তবে আশার কথা হলো, কাশ্মিরের কর্তৃপক্ষ উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় বুধবার (৯ অক্টোবর) থেকে পুনরায় খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, শ্রীনগরে স্বনামধন্য শ্রী প্রতাপ কলেজের সামনে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান নিয়েছে। তারা কলেজের শিক্ষার্থীদের পরিচয়পত্র পরীক্ষা করে ঢুকতে দিচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই কলেজের রসায়ন বিভাগের একজন শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, আমরা কেবল লেখাপড়ার কিছু ম্যাটেরিয়াল সংগ্রহ করতে কলেজে এসেছি, পরিস্থিতি আরও স্বাভাবিক না হলে কলেজ শুরু করা সম্ভব হবে না।

এদিকে, জম্মু ও কাশ্মির এবং লাদাখে পর্যায়ক্রমিকভাবে সব সুবিধা চালু করা হলেও মোবাইল এবং ইন্টারনেট সংযোগ সরকার এখনই চালু  করতে চায় না বলে সংশ্লিষ্ঠরা জানিয়েছেন। অক্টোবরের ২৪ তারিখে ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা এই অঞ্চলে। ওই নির্বাচনের মাধ্যমেই গণতান্ত্রিক পরিবেশের একটি প্রদর্শনী করতে ইচ্ছুক কাশ্মিরের কর্তৃপক্ষ।

ওই নির্বাচনকে সামনে রেখে ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ফারুক আব্দুল্লাহ ও তার ছেলে ওমর আব্দুল্লাহর সাথে পার্টির নেতাদের দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে। তারা অপর এক পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতির সাথে আগস্ট থেকে আটক রয়েছেন। রাজনৈতিক নেতাদের এই আটকাদেশের প্রতিবাদে ভারতীয় কংগ্রেস ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল নির্বাচন বর্জন করেছে।

কংগ্রেসের আঞ্চলিক প্রধান নেতা গুলাম আহমেদ মির বলেছেন, কংগ্রেস লজ্জায় ভোট থেকে পালিয়ে যাচ্ছে না, বরং গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরও শক্তিশালী করার দাবিতে ভোট বর্জন করছে।

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন