বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ২ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

কাতার ম্যাচে বৃষ্টি কি বাংলাদেশের জন্য আশির্বাদ?

অক্টোবর ১০, ২০১৯ | ৫:৩৫ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ক'দিন আগেই ভুটানের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে ভারী বৃষ্টিতে কর্দমাক্ত মাঠেই ভুটান হেরেছিল বড় ব্যবধানে। ম্যাচ শেষে বড় ব্যবধানে হারার পেছনে বৃষ্টিকে কারণ হিসেবে দেখিয়েছিলেন ভুটান কোচ। তিনি বলেছিলেন, 'এমন আবহাওয়া থাকলে কাতারও হেরে যেতে পারে।'

বিজ্ঞাপন

ভুটান কোচ পেমা দর্জির সেই কথার পর বেশ আলোচনার নাম হয়ে যায় 'বৃষ্টি'।

বৃষ্টি কি কাতার ম্যাচে বাংলাদেশের জন্য আশির্বাদ হয়ে আসবে?

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বৃষ্টিভেজা কর্দমাক্ত মাঠে হারার পর দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাভাবিক পরিবেশেই ভুটান হেরেছিল ২-০ ব্যবধানে।

বিজ্ঞাপন

তারপর থেকেই বলা হচ্ছে বৃষ্টির সৌভাগ্যের কথা! প্রাকৃতিক ঘাসে অভ্যস্ত বাংলাদেশের জন্য বৃষ্টিকে আশির্বাদ মনে করছেন এই ভুটান কোচ। সেই বৃষ্টি বয়ে এলো আজ বিকেলে। ঝিরিঝিরি বৃষ্টি হচ্ছে বিকেল থেকেই। মাঠও ভেজা থাকবে। এমন ভেজা প্রাকৃতিক ঘাসের মাঠ কিছুটা কর্দমাক্ত হবে এটাই স্বাভাবিক।

তবে সেটা কি আজ সন্ধ্যায় হতে যাওয়া বিশ্বকাপ বাছাই ও এশিয়ান কাপে কাতার-বাংলাদেশ ম্যাচে কোনো সহায়তা করবে ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে কোচ জেমি ডের জবাব, 'একটু সহায়ক হলেও হতে পারে। তবে কাতার আমাদের থেকে সামর্থ্যে অনেক এগিয়ে। এটা সেভাবে সাহায্য করবে বলে মনে হয় না। আমরা আমাদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টাটাই করবো।'

কাতার কোচ ফেলিক্স সানচেজের কথাতেও পরিবেশ মানিয়ে নেয়ার চ্যালেঞ্জ, 'যে কোনো পরিবেশেই আমাদের মানিয়ে নিয়ে সর্বোচ্চ ভালো রেজাল্ট বের করতে হবে।'

সেরাটা দিয়েই রুখে দেয়ার প্রত্যয় কোচ-ফুটবলারদের। ই গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে সবার উপরে থাকা কাতারকে রুখে দিতে আজ সন্ধ্যা সাতটায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে নামবে বাংলাদেশ। বৃষ্টি হোক আর না হোক কাতারকে রুখে দেবে লাল-সবুজরা এমনটাই প্রত্যাশা দেশের ফুটবল সমর্থকদের।

সারাবাংলা/জেএইচ/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন