রবিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৪ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

রিমান্ড শেষে কারাগারে কলাবাগানের শফিকুল

অক্টোবর ১১, ২০১৯ | ২:২৪ পূর্বাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: অবৈধ অস্ত্র ও নতুন রংয়ের ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় রাজধানীর কলাবাগান ক্রীড়া চক্র ক্লাবের সভাপতি ও কৃষক লীগ নেতা মো. শফিকুল আলম ফিরোজকে তৃতীয় দফায় রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। একই সঙ্গে তার চিকিৎসা বিষয়ে আবেদন মঞ্জুর করেন আদালত।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-২ এর এসআই জসিম উদ্দিন খান আসামিকে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

বিজ্ঞাপন

আবেদনে বলা হয়, আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি মামলা সংক্রান্তে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। যা তদন্তের স্বার্থে গোপন রেখে যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। যাচাই-বাছাই শেষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। জামিন পেলে পলাতক হওয়ার সম্ভাবনা আছে। এজন্য আসামির জামিনের বিরোধী করেন এ তদন্ত কর্মকর্তা।

এসময় আসামিপক্ষের আইনজীবী মাসুদ এ কে চৌধুরীসহ অন্যান্য আইনজীবীরা তার জামিন প্রার্থনা করেন। আদালত তাদের আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গত ২০ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-২ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গাউছুল আজমের নেতৃত্বে কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের অফিস ভবনের ভেতরে অভিযান পরিচালনা করেন। ওই সময় অফিস কক্ষ তল্লাশি করে একটি বিদেশি পিস্তল, ৯৯০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং একটি মোবাইল ফোন জব্দ করে। পরে শফিকুল আলমের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের অভিযানের সময় শফিকুল আলম ফিরোজকে আটক করা হয়। এরপর গত ২১ সেপ্টেম্বর পৃথক দুই মামলায় ১০দিন ও ৩০ সেপ্টেম্বর অস্ত্র আইনের মামলায় ৫ দিন এবং সর্বশেষ ৬ অক্টোবর দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

সারাবাংলা/এআই/ এজেডকে/

বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন