বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জমাদিউস-সানি ১৪৪১

বিজ্ঞাপন

জাতীয় দলের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন সাইফ

অক্টোবর ১৩, ২০১৯ | ৬:৫৫ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

অনূর্ধ্ব-১৯ দলের দুই সতীর্থ আফিফ হোসেন ধ্রুব ও নাঈম হাসান ইতোমধ্যেই জাতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছেন। কিন্তু তার সুযোগ এখনও হয়ে ওঠেনি। কিন্তু তাই বলে বসে নেই এই ওপেনার। দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটের জন্য নির্বাচকদের রাডারে আছেন, সেটা তিনি ভালো করেই জানেন। সঙ্গত কারণেই জাতীয় দলের হয়ে মাঠ কাঁপাতে সবধরণের প্রস্তুতিই নিচ্ছেন ২০ বছর বয়সী এই সুদর্শন ব্যাটসম্যান। বলছিলাম সাইফ হাসানের কথা।

বিজ্ঞাপন

সাইফের জাতীয় দলের প্রস্তুতিটা শুরু হয়েছে সেই অনূর্ধ্ব-১৯ দল থেকেই। যুবা দলে পারফর্ম করে জায়গা করে নিয়েছেন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে। সেখানে তো রীতিমতো ইতিহাসই গড়লেন। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ লিস্ট এ ক্রিকেটে উন্নীত হওয়ার পর গেল মৌসুমে দেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ছুঁয়েছেন ৮শ রানের কোঠা। ৬২.৬১ গড়ে ১৬ ম্যাচ থেকে তার সংগ্রহ ৮১৪ রান। তিনটি সেঞ্চুরির সাথে আছে চারটি ফিফটি।

মাস দুয়েক আগে ইমার্জিং দলের হয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে খেলেছিলেন অনবদ্য ১১৭ রানের ইনিংস। সবশেষ গেল শনিবার (১২ অক্টোবর) কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে তার ১১৭ রানে সিরিজ জয়ের গৌরব নিয়ে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল।

বিজ্ঞাপন

তবে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগই তার ব্যাটিং ছন্দটা এনে দিয়েছে বলে তিনি মনে করেন। রোববার (১৩ অক্টোবর) শ্রীলঙ্কা সফর থেকে ফিরে মিরপুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে সে কথাই জানালেন, ‘প্রিমিয়ার লিগ থেকেই আসলে নিজের একটা পরিবর্তন আনার চেষ্টা করেছি। প্রিমিয়ার লিগে যেমনটা খেলার চেষ্টা করেছি তার পরবর্তী যে টুর্নামেন্টগুলো হয়েছে, শ্রীলঙ্কা সঙ্গে ভালো হয়েছে আল্লাহর রহমতে। আবার ভারতেও কিছু ইনিংস ভালো ছিল। সবমিলিয়ে চেষ্টা করছি নিজেকে পরিবর্তন করার। যে সুযোগটি পাই সেটা কাজে লাগানোর চেষ্টা করছি।’

এবার মঞ্চ হিসেবে নিশানা তাক করেছেন চলমান জাতীয় ক্রিকেট লিগের দিকে। সব কিছু ঠিক থাকলে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট শুরু করবেন। আপ্রাণ চেষ্টা করবেন সেখানেও দারুণ কিছু করে দেখাতে, ‘সামনে যে সুযোগটি আসবে সেটাই কাজে লাগানোর চেষ্টা করবো। যেহেতু জাতীয় লিগ চলছে এটায় ভালো করার চেষ্টা করবো। জাতীয় দলের জন্য প্রস্তুতি অনেক আগে থেকেই নিচ্ছি। চেষ্টা করছি আরো ফিট হওয়ার। ফিল্ডিং, ব্যাটিংয়ে আরো উন্নতি আনার। যখন খেলবো তখনই ঘাটতি বের হবে। সেই ঘাটতি নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করছি। যতটা উন্নতি করবো এবং যতটা প্রস্তুত হবো ততো ভালো হবে জাতীয় দলের জন্য।’

সারাবাংলা/এমআরএফ/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন