সোমবার ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘চিকিৎসা বিজ্ঞানে অ্যানেসথেশিয়ার ভূমিকা অপরিসীম’

অক্টোবর ১৬, ২০১৯ | ৫:৩৩ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার বলেছেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানে অ্যানেসথেশিয়ার ভূমিকা অপরিসীম। সঠিকভাবে ও যথাযথ পরিমাণ অ্যানেসথেশিয়া রোগীর শরীরে প্রয়োগ না করতে পারলে রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি থাকে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১৬ অক্টোবর) বিএসএমএমইউতে ১৭৩তম বিশ্ব অ্যানেসথেশিয়া দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক র‌্যালি উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, যেকোনো সার্জারির আগে রোগীদের ব্যথা নিরাময়ের জন্য অ্যানেসথেশিয়ার ভূমিকা অতুলনীয়।
বর্তমানে অ্যানেসথেশিয়ার বিষয়টি অনেক উন্নত ও আধুনিক হওয়ার কারণে রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকিও অনেক কমে এসেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশব্যাপী ও সমগ্র বিশ্বে অ্যানেসথেশিওলজিস্টরাই আইসিইউ সেবা দিয়ে থাকেন।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ সোসাইটি অফ অ্যানেসথেশিয়লজিস্টদের উদ্যোগে এবার ১৭৩তম বিশ্ব অ্যানেসথেশিয়া দিবস উপলক্ষে বেলুন ও পায়রা উড়ানো হয়। এছাড়া একটি র‌্যালি ও শহীদ ডা. মিলন হলে কেক কাটার আয়োজন করা হয়। এবারে বিশ্ব অ্যানেসথেশিয়া দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো ‘অনলি টু হ্যান্ডস সেভ দ্য লাইভ অফ মেনি পিপলস’।

এছাড়া বুধবার (১৬ অক্টোবর) বিএসএমএমইউতে বিশ্ব মেরুদণ্ড দিবস—২০১৯ উপলক্ষে ক্যাম্পাসে আরেকটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন অংশ প্রদক্ষিণ করে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, অ্যানেসথেশিয়া অ্যান্ড ইনটেনসিভ কেয়ার মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কে এম আখতারুজ্জামান, অধ্যাপক ডা. দেবব্রত বনিক, অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল হাই, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবু জাফর চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. মো. আনোয়ারুল ইসলাম ও অধ্যাপক ডা. কৃষ্ণপ্রিয় দাশসহ অন্যান্যরা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন