বুধবার ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৯ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিনতে নতুন প্রস্তাব দেবেন এমবিএস!

অক্টোবর ২০, ২০১৯ | ১০:৪১ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

ইংলিশ ফুটবল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকানা বদল হতে পারে। প্রিমিয়ার লিগ জায়ান্ট চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটির মত এই ক্লাবটির মালিকানাও চলে যেতে পারে আরব শেখের হাতে।

বিজ্ঞাপন

ইংলিশ সংবাদমাধ্যম দ্য মিরর জানায়, দুটি প্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর মোটেও দমে যাননি সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন সালমান। ক্লাবটি কিনতে এবার আরেকটি নতুন প্রস্তাব করবেন সৌদি যুবরাজ। এর আগে আরব দুনিয়ার সবচেয়ে আলোচিত ও সমালোচিত ব্যাক্তি মোহাম্মদ বিন সালমানের দুটি প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় ক্লাবটির মালিক গ্ল্যাজার পরিবার। দ্য মিরর জানায়, সবশেষ প্রস্তাবটির আকার ছিলো প্রায় ৪ বিলিয়ন ডলার।

ইউরোপের ক্লাব ফুটবলে আরব ধনকুবেরদের আগ্রহ নতুন নয়। বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম ব্র্যান্ড ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিনতে বাদশাহ পুত্রের আগ্রহের খবরও পুরনো। এর আগে গত বছরে এমবিএসের আগ্রহের কথা জানা যায়। এরপর ক্লাবটির মালিকপক্ষকে বিভিন্ন অংকের প্রস্তাব দিয়ে আসছেন তিনি। এবারে নতুন প্রস্তাবটি ৫ বিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর যদি তাই হয় তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকানা পেট্রোডলারের দেশে চলেও যেতে পারে বলে ধারণা করছেন অনেকেই।

প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকানা ২০০৫ সাল থেকে রয়েছে আমেরিকান ধনকুবের গ্ল্যাজার পরিবারের হাতে। তবে সম্প্রতি ইংল্যান্ডের সফলতম এই ক্লাবটি যেভাবে পরিচালনা করছে তারা, তাতে খুশি নন রেড ডেভিল সমর্থকরা। বিশেষ করে ক্লাবের অন্যতম প্রাণভোমরা সাবেক ম্যানেজার স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের অবসরের পর সংকটে পড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এ সমস্যা উত্তরণে ক্লাবের মালিকপক্ষ যথেষ্ট আন্তরিক নন বলে মনে করছেন অনেক সমর্থক।

সম্প্রতি অন্যতম মালিক কেভিন গ্ল্যাজার ক্লাবটির ১৩ শতাংশ শেয়ার নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে ছাড়েন। এর মাধ্যমে তারা ক্লাবটির মালিকানা ছেড়ে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কেভিন গ্ল্যাজার আমেরিকার ধনকুবের পরিবারটির একজন অন্যতম সদস্য। ক্লাবের অন্য মালিকরা তারই ভাইবোন।

২০০৫ সালে এই ক্লাবটি ১ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলারে কিনে গ্ল্যাজার পরিবার। ১৪ বছর পর এর দ্বিগুণেরও বেশি পরিমাণ টাকার প্রস্তাব দিয়েও ক্লাবটির মালিক হতে পারছেন না সৌদি আরবের দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যাক্তি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন