মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

সুন্দর সন্ধ্যায় সুস্মিতা সেন [ফটো স্টোরি]

নভেম্বর ১, ২০১৯ | ৪:৩০ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয় ‘মিস ইউনিভার্স’ প্রতিযোগিতা। আর প্রথম আসরেই বিজয়ীর মুকুট উঠেছে ঠাকুরগাঁওয়ের মেয়ে শিরিন আক্তার শীলার মাথায়। আর সেই মুকুট তাকে পরিয়ে দেন ১৯৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন। এ বছরের ১৯ ডিসেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ায় সুন্দরী প্রতিযোগিতার বৈশ্বিক আসরে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী শীলা।

বিজ্ঞাপন

রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে (নবরাত্রি–৪) গত ২৩ অক্টোবর গ্র্যান্ড ফিনালে উপস্থিত ছিলেন সারাবাংলার স্পেশাল ফটো করেসপন্ডেন্ট আশীষ সেনগুপ্ত। তিনি বলিউড তারকা সুস্মিতাকে নানা মুহুর্তে ধারণ করেছেন তার ক্যামেরায়।

তৃতীয়বারের মতো ঢাকার মাটিতে পা রাখেন বলিউড সুন্দরী সুস্মিতা সেন। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আয়োজিত ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

এর আগে ২০১১ ও ২০১৫ সালের দুটি ভিন্ন অনুষ্ঠানে ঢাকা ঘুরে যান এ বলিউড অভিনেত্রী। আবারও বাংলাদেশে এসে ভালোলাগার অনুভূতি ব্যক্ত করেন। সেই সাথে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞানের শিক্ষার্থী শিরিন আক্তার শীলার মাথায় বিজয়ীর স্বীকৃতি হিসেবে ৭৫০টি ডায়মন্ডখচিত ‍মুকুট পরিয়ে দেন। আয়োজক সূত্রে জানা গেছে,  মুকুটটির বাজারমূল্য আনুমানিক ২০ লাখ টাকা।

সুস্মিতা সেন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সড়ক, পরিবহ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া উপস্থিত  ছিলেন সংগীতশিল্পী তাহসান খান, রূপবিশেষজ্ঞ কানিজ আলমাস খান, তুতলি রহমান, রুবাবা দৌলা ও ফারজানা চৌধুরীসহ আরও অনেকে।

বিজয়ী ঘোষণার পর আনন্দে আত্মহারা শিরীন আক্তার শীলা ’৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স সুস্মিতা সেনকে জড়িয়ে ধরে। সুস্মিতাও তাকে জড়িয়ে ধরে বিজয় উদযাপন করেন। পুরো অডিটোরিয়াম তখন করতালিতে ফেটে পড়েছিল।

সুস্মিতা মঞ্চে উঠে সুন্দরী প্রতিযোগিতা নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতার কথা শোনান অডিটোরিয়াম ভর্তি দর্শকদের। সবাই যেন মন্ত্রমুগ্ধর মতো শুনছিল তার কথা।

প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় রানার আপকে হাততালি দিয়ে উৎসাহিত করছেন সুস্মিতা সেন। অতিথি বিচারক হয়েও মনে হয়েছিল, তিনি শুরু থেকে এই প্রতিযোগিতার সাথে যুক্ত আছেন। প্রতিযোগীদের খুব কাছ থেকে দেখেছেন।

বিজয়ী শিরিন আক্তার শীলার হাত ধরে মঞ্চে হাঁটছেন বলিউড ডিভা সুস্মিতা সেন। তিনি নিজের অবস্থান থেকে চেয়েছেন, শীলার এই অর্জনকে আরও বেশি উদযাপন করতে।

বাংলাদেশের মেয়েদের আত্মবিশ্বাসের প্রশংসা করেন সুস্মিতা সেন। তিনি বিশ্বাস করেন, চাইলে বাংলাদেশের মেয়েরা বিশ্ব আসরে ভালো করবে। এছাড়া বাংলাদেশে আবারও আসার আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন