বুধবার ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

জামিন হয়নি রিফাত হত্যা মামলার ২ আসামির

নভেম্বর ৫, ২০১৯ | ৪:৪৭ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় এক কিশোর আসামিসহ দুই জনের জামিন আবেদন কার্য তালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ আসামি রাফিউল ইসলাম রাব্বিসহ দুই আসামির জামিন আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যার্টনি জেনারেল মো. বশির উল্লাহ। কিশোর আসামির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. ছগির হোসেন ও আসামি রাফিউল ইসলাম রাব্বির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জাহাঙ্গীর কবির।

জামিনের আবেদনকারীদের মধ্যে মামলার আট নম্বর আসামি ওই কিশোর। গত ১৫ অক্টোবর নিম্ন আদালতে তার জামিন আবেদন না মঞ্জুর হয়। ওই আদেশের বিরুদ্ধে গত ২৭ অক্টোবর জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে সে। গত ৫ জুলাই রিফাত হত্যা মামলায় ওই কিশোরকে গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে আসামি রাফিউল ইসলাম রাব্বিকে গত ১ জুলাই গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর বরগুনার বিচারিক হাকিম আদালতে জামিন চাইলে গত ১৮ সেপ্টেম্বর সে আদালতে তার জামিন নামঞ্জুর হয়।

এ আদেশের বিরুদ্ধে জেলা দায়রা জজ আদালতে আবেদন করলে সে আদালতেও তার জামিন নামঞ্জুর হয়।

পরে এ আদেশের বিরুদ্ধে গত রোববার হাইকোর্টে আবেদন করেন আসামি রাফিউল ইসলাম রাব্বি।

আইনজীবী জাহাঙ্গীর কবির বলেন, ‘হাইকোর্টের অন্য বেঞ্চে আবার জামিন আবেদন করা হবে।’

গত ২৬ জুন বরগুনা জেলা শহরের কলেজ রোডে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাতকে। ওই ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে সমালোচনা হয়।

এরপর ২ জুলাই এ হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন।

এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনকে আসামি করে বরগুনা থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে মামলায় ১ নম্বর সাক্ষী করা হয়। কিন্তু মিন্নির শ্বশুরই পরে হত্যাকাণ্ডে পুত্রবধূর জড়িত থাকার অভিযোগ তোলেন। এরপর ১৬ জুলাই মিন্নিকে বরগুনার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। পরে সেদিন রাতে তাকে রিফাত হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

মামলার ১৪ কিশোর আসামি বাদে অন্য আসামিরা হলেন- রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজী (২৩), আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজোয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), মো. হাসান (১৯), মো. মুসা (২২), আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো. সাগর (১৯) ও কামরুল হাসান সায়মুন (২১)।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ এজেডকে/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন