বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

দুর্নীতির মামলায় জি কে শামীম ও খালেদ কারাগারে

নভেম্বর ৭, ২০১৯ | ৬:১৮ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগের মামলায় জি কে শামীম ও খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার রিমান্ড শেষে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর ) বিকেলে জি কে শামীমকে সাতদিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাউদ্দিন। অপরদিকে, খালেদের সাত দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করে দুদকের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম। এ দু’জনকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষ না পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে তাদের জামিনের আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে, গত ২২ অক্টোবর জি কে শামীমকে গ্রেফতার দেখানোসহ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাউদ্দিন। ওইদিনই খালেদকে গ্রেফতার দেখানোসহ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন দুকের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম। এরপর গত ২৭ অক্টোবর দুই জনের সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

এদিন আসামিদের পক্ষের আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করেন। অপরদিকে, দুদকের পক্ষের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল এ জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে রিমান্ডের আদেশ দেন।

গত ২০ সেপ্টেম্বর দুপুরে নিকেতনের নিজ বাসা থেকে শামীমকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে প্রায় ২০০ কোটি টাকার এফডিআর চেকসহ বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি টাকা জব্দ করা হয়েছে। শামীমের কাছে একটি অস্ত্রও পাওয়া যায়।

এরপর গত ২১ অক্টোবর শামীম ও তার মা আয়েশা আক্তারের বিরুদ্ধে ২৯৭ কোটি আট লাখ ৯৯ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ ও খালেদের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি ৫৮ লাখ ১৫ হাজার ৮৫৯ টাকার অবৈধ সম্পদের অর্জনের অভিযোগে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাটি দায়ের করা হয়।

অন্যদিকে, গত ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় আটক করা হয় খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে। তার বাসা থেকে একটি অবৈধ অস্ত্র, লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করা আরও দুইটি অস্ত্র, কয়েক রাউন্ড গুলি ও দুই প্যাকেটে ৫৮২ পিস ইয়াবা জব্দ করে র‌্যাব। এছাড়া তার বাসার ওয়াল শোকেস থেকে ১০ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ও চার থেকে পাঁচ লাখ টাকা সমমূল্যের মার্কিন ডলার জব্দ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৩ অক্টোবর বহিস্কৃত যুবলীগ নেতা এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীম এবং যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান আদালত।

এর আগে, পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে জি কে শামীমকে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু সাঈদ। অপরদিকে, মানিলন্ডারিং এবং মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড শেষে খালেদ ভূইয়াকে আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এআই/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন