শনিবার ১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

শক্তিশালী জর্ডানকে চমকে দিল ইয়াসিন-ফাহিমরা

নভেম্বর ৮, ২০১৯ | ৯:৩৯ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ২০১৬ সালে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের কথা মনে আছে নিশ্চয়ই। জর্ডানের কাছে বাংলাদেশ দুই লেগ মিলিয়ে হজম করেছিল ১২টি গোল। তিন বছর পর এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপে এবারও দুই দলের সাক্ষাত। জাহিদ-এমিলিদের শিষ্যরা এবার শক্তিশালী জর্ডানকে চমকে দিয়েছে। জর্ডানকে হারাতে না পারলেও দারুণ ফুটবলে থমকে দিয়েছে। ১-১ ব্যবধানে ড্র করে মাঠ ছেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

আজ শুক্রবার (০৮ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত সন্ধ্যা সাতটায় বাহরাইনের খালিফা স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জর্ডানকে ১-১ ব্যবধানে আটকে দিয়েছে বাংলাদেশ।

এ ড্রয়ে এএফসি কাপের নক আউট পর্বে ওঠার আশা এখনও টিকে রইলো কোচ অ্যান্ড্রু পিটার টার্নারের শিষ্যদের। এর আগে প্রথম ম্যাচে বাহরাইনের কাছে ৩-০ ব্যবধানে হেরেছিল লাল-সবুজরা।

প্রথমেই হোঁচট খেয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে তাই ঘুরে দাঁড়ানো জরুরি হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের। সেটাও জর্ডানের সঙ্গে।

বিজ্ঞাপন

শক্তিশালী জর্ডানের বিপক্ষে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারতো বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে অতিরিক্ত মিনিটে গোল হজম না করলে হয়তো পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করতো ইয়াসিন-ফাহিমরা।

পিছিয়ে থাকা টাইগাররা ম্যাচে সমতায় ফেরে ৭৪ মিনিটে। কাজী রাহাতের লম্বা থ্রো থেকে দলের অধিনায়ক ইয়াসিন আরাফাতের দারুণ গোলে সমতা আনে লাল-সবুজরা। কিছু সুযোগ নষ্ট করলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারতো টার্নারের শিষ্যরা।

এ ড্রয়ে আশা জিইয়ে রইলো লাল-সবুজদের। গ্রুপ ই’র পয়েন্ট টেবিলে তিনে উঠে এলো বাংলাদেশ। পরের ম্যাচ সহজ প্রতিপক্ষ ভুটানের সঙ্গে। এ ম্যাচে বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়া হবে লাল-সবুজদের উদ্দেশ্য।

বাছাই পর্ব হচ্ছে ১১ গ্রুপে। প্রতিটি গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন এবং সেরা ৪ রানার্সআপ দলের সঙ্গে স্বাগতিক উজবেকিস্তানকে নিয়ে আগামী বছর অনুষ্ঠিত হবে চূড়ান্ত পর্ব।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন