মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘বুলবুল’র কবলে জাতীয় ক্রিকেট লিগ

নভেম্বর ৯, ২০১৯ | ৫:০৬ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

দেশের চারটি ভেন্যুতে আজ থেকে জাতীয় ক্রিকেট লিগের পঞ্চম রাউন্ডের অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেখানে বাধ সাধল ঘূর্ণিঝড়-বুলবুল। বুলবুলের প্রভাবে গতকাল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি আজও  অঝোড় ধারায় ঝড়তে থাকায় লিগের চার ম্যাচের দুটিতে টসই হয়নি। আর অপর দুই ম্যাচ বন্ধ হয়েছে আলোক স্বল্পতার কারণে।

বিজ্ঞাপন

বৃষ্টির তীব্রতায় টস না হওয়া ভেন্যু দুটো হল; মিরপুর শের ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম ও উপকূলীয় বিভাগ বরিশালের বিভাগীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম। শের ই বাংলায় রাজশাহী বিভাগের প্রতিপক্ষ খুলনা বিভাগ। আর  বরিশালে চট্টগ্রাম বিভাগকে আতিথ্য দেওয়ার কথা স্বাগতিকদের।

এদিকে আলোক স্বল্পতায় বন্ধ হয়েছে হয়েছে বগুড়ার শহীদ চান্দু ন্টেডিয়াম ও রাজশাহী বিভাগী স্টেডিয়ামের ম্যাচ। বগুড়ায় রংপুর ও ঢাকা বিভাগের মধ্যকার ম্যাচটি গড়িয়েছে ৪১ ওভার পর্যন্ত। যেখানে ঢাকা বিভাগের পেস তোপে ১১০ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়েছে রংপুর বিভাগ। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন শাহাদাত হোসেন ও সালাহউদ্দিন শাকিল। অপর শিকারি নাজমুল ইসলাম অপু।

বিজ্ঞাপন

প্রথম ইনিংসে রংপুরের হয়ে বক্তিগত সর্বোচ্চ ৫৭ রান করেছেন সোহরাওয়ার্দী শুভ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ রান এসেছে নাইম ইসলামের ব্যাট থেকে।

দুই ওপেনার রিশাদ হোসেন ও মেহেদি মারুফ ফিরেছেন রানের খাতা না খুলেই। রিশাদের শিকারি শাহাদাত ও মেহেদি মারুফকে তুলে নিয়েছেন সালাহউদ্দিন শাকিল।

৯৬ বলে ১১টি চার মেরে ৫৭ রানে নাজমুল ঘূর্ণিতে শুভাগত হোমের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন সোহরাওয়ার্দী শুভ।২৩ রানে নাইম ইসলামকে কট অ্যান্ডে বোল্ডে পরিণত করেছেন শাহাদাত হোসেন রাজিব। আর আরিফুল হককে ১৫ রানে শাকিল হোসেনের গ্লাভসে পাঠিয়ে দেন শাকিল।

দিন শেষে নাসির হোসেন ৫ ও তানবির হায়দার ৬ রানে অপরাজিত আছেন।

আলোক স্বল্পতায় বন্ধ হয়ে যাওয়া অপর ভেন্যু রাজশাহী বিভাগীয় স্টেডিয়ামে খেলা হয়েছে প্রথম দিনের ৭৬ ওভারের খেলা। পদ্মা বিধৌত এই মাঠে সিলেট বিভাগের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ঢাকা মহানগরী শামসুর রহমান শুভর সেঞ্চুরি (১১৪) ও আল আমিনের ৬৯ রানে ভর করে ৭ উইকেটে সংগ্রহ করেছে ২৮২ রান। ২ রানের জন্য ফিফটি বঞ্চিত হয়েছেন ওপেনার রাকিন আহমেদ।

দিন শেষে শরিফুল্লাহ ২১ ও নিহাদুজ্জামান অপরাজি আছেন ০ রানে।

উইকেট শিকারে সিলেট বিভাগের হয়ে পারদর্শীতা দেখিয়েছেন মিডিয়াম পেসার রেজাউর রহমান ও এনামুল হক জুনিয়র। রেজার শিকার ৪টি ও এনামুলের ৩টি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরএফ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন