রবিবার ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

মিষ্টি ফসলের গবেষণায় ‘সুপারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট বিল’ পাস

নভেম্বর ১২, ২০১৯ | ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: দেশের সকল মিষ্টি ফসলের গবেষণা একই ছাতার নিচে আনতে ‘বাংলাদেশ সুপারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএসআরআই) আইন-২০১৯’  বিল পাস হয়েছে জাতীয় সংসদে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে সংসদের পঞ্চম অধিবেশনে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়।

বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক। তবে বিলের ওপর আনা সংশোধনী, জনমত যাচাই ও বাছাই কমিটিতে পাঠানো প্রস্তাবগুলি কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

বিলে বলা হয়, প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির সিদ্ধান্তের আলোকে আখ গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিবর্তে দেশের মিষ্টি ফসলের গবেষণা অব্যাহত রাখতে আইনটি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া বিলে নতুন আইন হওয়ার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ আখ গবেষণা ইনস্টিটিউটের সকল সম্পদ, অধিকার, ক্ষমতা, কর্তৃত্ব, চুক্তিসমুহ, ঋণ, দায় ও দায়িত্ব, এই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বা এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে দায়ের করা সব মামলার আইনগত কার্যধারা বহাল থাকবে। ইনস্টিটিউটের বোর্ড বা কমিটি এমনভাবে বহাল থাকবে যেন তা এই আইনের অধীনে গঠিত হয়েছে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে অনুষ্ঠিত প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির সিদ্ধান্তের আলোকে প্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তন করে বাংলাদেশ সুপারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট নামকরণ করা হয়। সে অনুসারে এখন পর্যন্ত আইনটি পরিবর্তন বা সংশোধন হয়নি। তাই প্রতিষ্ঠানটির শিরোনাম পরিবর্তনসহ বিদ্যমান আইনটি সংশোধন ও হালনাগাদ করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে।

তাই মিষ্টি জাতীয় ফসলের গবেষণা অব্যাহত রাখা প্রয়োজন বিবেচনায় ১৯৯৬ সালে প্রণীত বাংলাদেশ আখ গবেষণা ইনস্টিটিউট আইন ও ২০০২ সালে সংশোধিত আইন দুটি রহিত করে অধিকতর সংশোধন ও পরিমার্জন করে ‘বাংলাদেশ সুপারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট আইন-২০১৯’ বিলটি প্রণয়ন করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/এমআই

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন