বুধবার ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি শফিকুলের বিরুদ্ধে চার্জশিট

নভেম্বর ১২, ২০১৯ | ১১:৩৪ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় কলাবাগান ক্রীড়াচক্র ক্লাবের সভাপতি ও কৃষক লীগ নেতা মো. শফিকুল আলম ফিরোজের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের মামলায় আদালতে চার্জশিট দিয়েছে র‌্যাব-২।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালতে চার্জশিটটি উপস্থাপন করা হয়। গত ৭ নভেম্বর মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-২-এর উপপরিদর্শক (নিরস্ত্র) জসিম উদ্দিন খান আদালতের সংশ্লিষ্ট জিআর শাখায় চার্জশিট জমা দেন। আজ আদালত চার্জশিটটি দেখেছেন। মামলাটি বিচারের জন্য মহানগর দায়রা জজ আদালতে পাঠানো হবে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

চার্জশিটে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, শফিকুল আলমের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব প্রথমে ধানমন্ডি মডেল থানা পুলিশ, পরে ডিবি পুলিশ এবং সর্বশেষ র‌্যাবকে দেওয়া হয়। এরপর আসামি শফিকুল আলমকে কয়েক দফা রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে আসামি জানান, আগে তিনি ক্যাসিনো ব্যবসা করতেন। ক্যাসিনো ব্যবসা থেকে উপার্জিত অর্থের একটি বড় অংশ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল আলম সেন্টুকে পাঠাতেন।

শফিকুল আলম বিভিন্ন ধরনের অপরাধ সংগঠন করার জন্য নিজ হেফাজতে লাইসেন্স ছাড়াই অবৈধভাবে আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ রেখে ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের (সংশোধনী/২০০০) ১৯ ধারার অপরাধ করেছেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, গত ২০ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-২-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গাউছুল আজম কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের অফিস ভবনের ভেতরে অভিযান পরিচালনা করেন। ওই সময় অফিস কক্ষ তল্লাশি করে একটি বিদেশি পিস্তল, ৯৯০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং একটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। আটক করা হয় শফিকুল আলমকে। পরে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়।

গত ২১ সেপ্টেম্বর পৃথক দুই মামলায় ১০ দিন ও ৩০ সেপ্টেম্বর অস্ত্র আইনের মামলায় পাঁচ দিন এবং সর্বশেষ ৬ অক্টোবর দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় শফিকুলের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এআই/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন