শুক্রবার ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

গুগল সার্চের ফলাফলে ‘পক্ষপাত’, আছে গোপন ব্ল্যাকলিস্ট

নভেম্বর ১৭, ২০১৯ | ৫:৩১ অপরাহ্ণ

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দলের সিনেটররা গুগল, ফেসবুক এবং টুইটারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতমূলক আচরণের অভিযোগ আনে। বিশেষত তাদের পলিসি রক্ষণশীলদের বিপক্ষে কাজ উল্লেখ করে ওই প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবহারকারীর বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগ আনা যায় বলে হুঁশিয়ার করেছিলেন সিনেটররা। এতদিন পর্যন্ত গুগলের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে, তাদের সার্চ ইঞ্জিন সকল ধরণের পক্ষপাতিত্বের উর্ধ্বে থেকে কাজ করে। স্পুটনিক নিউজ।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানাচ্ছে, সার্চের ফলাফলে গোপনে পক্ষপাতিত্ব করে গুগল। একশোর অধিক অতি ডানপন্থি-রক্ষণশীল ওয়েবসাইটের তালিকা নিয়ে তারা একটি 'ব্ল্যাকলিস্ট' তৈরি করেছেন। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে উঠে এসেছে ‘ইউনাইটেড ওয়েস্ট’ বা ‘গেটওয়ে পন্ডিতের’ মতো কিছু ওয়েবসাইট গুগল সার্চের ‘নিউজ’ অংশে কখনোই দেখানো হয় না। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল দাবি করেছে, তাদের হাতে আগস্ট ২০১৮ সালে গুগলের প্রকৌশলীদের কাছে পাঠানো একটি অফিস আদেশের কপি আছে। ওই আদেশে বলা হয়েছে, যে সকল ওয়েবসাইটের তথ্য এবং মালিকানা মানুষকে 'ভুল পথে পরিচালিত' করছে সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে।

গুগলের এই গোপন কার্যক্রমের সাথে জড়িত একজন নাম না প্রকাশ করে ওয়াল স্টিট জার্নালকে জানিয়েছেন, দ্বি পাক্ষিক ভাবে এই ‘ব্ল্যাকলিস্ট’ কাজ করে। একপক্ষ ওয়েবসাইটগুলোর নাম প্রস্তাব করে, আরেকপক্ষ অনুমোদন দেয়।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল আরও জানিয়েছে, অ্যামাজন বা ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানগুলোকে সার্চের ফলাফলে প্রথমদিকে দেখানোর জন্য অ্যালগরিদমে নিয়মিতভাবে পরিবর্তনও আনে গুগল। এইসব ক্ষেত্রে ছোট ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে পক্ষপাতমূলক আচরণ করে তারা। শুধু তাই নয় স্বয়ংক্রিয়ভাবে কিওয়ার্ড তৈরির ক্ষেত্রেও ‘ব্ল্যাকলিস্ট’ মানা হয়।

বিজ্ঞাপন

তবে, গুগলের মুখপাত্র তাদের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল অনেকদিনের পুরাতন পদ্ধতি নিয়ে কথা বলে তাদের অভিযুক্ত করতে চাচ্ছে। গুগল সার্চ ইঞ্জিনের বর্তমান পলিসি আরও অনেকে উন্নত এবং সমৃদ্ধ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন