বিজ্ঞাপন

হল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়নি, বিবৃতি জাবি প্রশাসনের

November 18, 2019 | 6:30 pm

জাবি করেসপন্ডেন্ট

অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণার পর এখনো জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) হল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছে জাবি প্রশাসন। জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের কোনো ফেসবুক আইডি নেই বলেও জানিয়েছে তারা।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৮ নভেম্বর)  বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কার্যালয়ের ভরপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের উদ্ধৃতি দিয়ে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে, ২১ নভেম্বর জাবির আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হবে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো যাচ্ছে, এ তথ্য সঠিক নয়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মনে করে, উদ্দেশ্যমূলকভাবে এ ধরনের মনগড়া ও অসত্য তথ্য প্রচার করা হচ্ছে, যার কোনো ভিত্তি নেই।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার বিষয়ে কর্তৃপক্ষ আন্তরিক। পরিবেশ ও পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে যথাসময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হবে এবং শিক্ষা কার্যক্রম চালু করা হবে।

বিজ্ঞাপন

জাবি উপাচার্যের ফেসবুক আইডি নেই

এদিকে, বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, জাবি উপাচার্যের ছবি ও পদবি ব্যবহার করে একটি ফেসবুক আইডি খোলা হয়েছে, যা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রকৃত তথ্য হচ্ছে, ড. ফারজানা ইসলামের নামে খোলা এই ফেসবুক আইডি ভুয়া। কোনো ব্যক্তি অসৎ উদ্দেশ্যে এই ভুয়া ফেসবুক আইডি খুলেছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ভুয়া ফেসবুক আইডি’র বিষয়ে এরই মধ্যে আশুলিয়া থানায় জিডি করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনকারীরাও জানান, জাবি উপাচার্যের নামে ফেসবুক আইডি খুলে বিভিন্ন জনকে ‘ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট’ পাঠানোর কথা তারাও শুনেছেন। তবে এই আইডির সঙ্গে তাদের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। বরং ওই আইডির সঙ্গে আন্দোলনকারীদের জড়িয়ে বিভিন্ন ধরনের বক্তব্য ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ জানান তারা। শিক্ষার্থীদের ন্যায্য আন্দোলনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই এমনটি করা হচ্ছে বলে মনে করছেন তারা।

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন