রবিবার ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ডিএসসিসিতে সমস্যা সমাধানে কাজ করবেন ১৮০০ কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর

নভেম্বর ২০, ২০১৯ | ১:৩০ পূর্বাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, সড়ক বাতি, মশক নিয়ন্ত্রণ, সড়ক মেরামত সহ নানা সমস্যার জরুরি সমাধান এবং সেবা কার্যক্রম মনিটরিং এর জন্য কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর টিমের কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

বিজ্ঞাপন

এ‌ উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দুপুরে ডিএসসিসির নগর ভবন প্রাঙ্গণে নাগরিক সেবার মানোন্নয়নে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে নিয়োজিত ১৮০০ জন কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডরের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন ডিএসসিসি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতায় ৭৫টি ওয়ার্ডে প্রায় ১৮০০ জন কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর টিমের সদস্য হিসেবে কাজ করবেন।

প্রতিটি ওয়ার্ডকে চার/পাঁচটি ইউনিটে ভাগ করা হয়েছে। প্রতি ইউনিটে ৭ জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবেন। রোস্টার অনুযায়ী স্বেচ্ছাসেবীরা তাদের আওতাধীন এলাকার রাস্তা, ড্রেন, সড়ক বাতিসহ অন্যান্য সেবা কার্যক্রম ঘুরে দেখবেন। আর সে অনুযায়ী একটা রিপোর্ট, পরামর্শ ও অভিযোগ তুলে ধরবেন যোগাযোগের জন্য গ্রুপে।

বিজ্ঞাপন

এই গ্রুপটি পরিচালনা করার জন্য সংস্থাটির ৫টি অঞ্চলের প্রধানরা সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করবেন। যে বিষয়ে অভিযোগ আসবে সেগুলো সেই অঞ্চলের সংশ্লিষ্ট বিভাগে চলে যাবে। নাগরিকরা www.dscc.gov.bd তে সরাসরি অভিযোগ জানাতে পারবেন।

স্বেচ্ছাসেবী বা কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর হিসেবে এসব টিমে থাকবেন ওয়ার্ডের দায়িত্বশীল নেতাকর্মী, অবসরপ্রাপ্ত চাকরিজীবি, মসজিদের ইমাম, মন্দিরের পুরোহিত ছাড়াও সরকারি বেসরকারি চাকরিজীবীরা।

অভিযোগ, পরামর্শ ও রিপোর্ট পাঠানোর জন্য স্বেচ্ছাসেবীদের পরিচয়পত্র এবং লগ বুক দেওয়া হবে পাশাপাশি যোগাযোগের স্বার্থে স্বেচ্ছাসেবীদের সবাইকে ক্লোজ গ্রুপে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। ফলে যে কোন এলাকায় নাগরিক সেবা কার্যক্রমের ধীর গতি, অসঙ্গতি, অভিযোগ খুব সহজেই জানতে পারবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। সেই সঙ্গে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেবে সংস্থাটি।

কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর টিমের কার্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডিএসসিসির সব ওয়ার্ডগুলো থেকে আসা কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডরসহ আরও উপস্থিতি ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. ইমদাদুল হক, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপক এয়ার কমোডর জাহিদ হোসেন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শরীফ আহমেদ, প্রধান প্রকৌশলী রেজাউল করিমসহ অন্যরা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন