শুক্রবার ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ৮ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

মহাসড়কে খানিকটা স্বস্তি, পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি যান চলাচল

নভেম্বর ২১, ২০১৯ | ১২:০০ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে মধ্যরাতের বৈঠকের পর ট্রাক-কাভার্ডভ্যান মালিকরা অবরোধ তুলে নিলেও এখনও পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি পরিস্থিতি। সড়ক-মহাসড়কে যান চলাচল ধীরে ধীরে বাড়তে থাকায় কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট এবং নারায়ণগঞ্জ সড়কে দূরপাল্লার যান চলাচল করতে দেখা গেছে। তবে খুলনা-কুষ্টিয়া এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সকাল থেকেই অবরোধ তুলে নেয় শ্রমিকরা। এর আগে মধ্যরাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বৈঠকে সুরাহা হয়।

বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘তাদের এক নম্বর দাবি ছিল চালকদের লাইসেন্স সর্ম্পকে। এখন পর্যন্ত চালকেরা যে লাইসেন্স দিয়ে রাস্তায় গাড়ি চালাচ্ছেন আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সেটাই ব্যবহার করতে পারবেন। তবে ৩০ জুনের পর থেকে সঠিক লাইসেন্স ব্যবহার করতে হবে। লাইট লাইসেন্স দিয়ে তখন আর ভারি গাড়ি চালাতে পারবেন না। তবে যারা অবৈধ লাইসেন্স ব্যবহার করবেন তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। অবৈধ লাইসেন্স ব্যবহারের ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠিন থাকবেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘তাদের আরেকটা দাবি হচ্ছে, এরই মধ্যে চালকেরা যেসব মামলা খেয়েছেন সেসব মামলার টাকা পরিশোধ না করায় চারগুণ হয়ে গেছে। তাই সেগুলো যেন মওকুফ করা হয়। তাদের সে দাবিও পুনর্বিবেচনা করা হবে। বিষয়টি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীকে অবহিত করা হবে।’

বিজ্ঞাপন

এদিকে সকালে থেকে দেখা যাচ্ছে, ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট এবং নারায়ণগঞ্জের সড়কে গণপরিবহনের পাশাপাশি ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান চলাচল করছে। তবে রাজধানীমুখী ট্রাক-কাভার্ড ভ্যানের সংখ্যা ছিল কম।

সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে এখনো খুলনা বিভাগীয় শহর এবং আন্তঃজেলা রুটে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রেখেছেন শ্রমিকরা। একইভাবে কুষ্টিয়া থেকেও বাস ছাড়ছে না। তবে রাজধানীর সায়েদাবাদ মহাখালী ও গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার বাস ছেড়ে যেতে দেখা গেছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএ/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন