শনিবার ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রামে ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র খুন

নভেম্বর ২১, ২০১৯ | ৪:৪৬ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহরে ছুরিকাঘাতে এক কলেজছাত্র খুন হয়েছেন। ঘটনার পর পুলিশ হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে তার বন্ধুকে আটক করেছে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) বিকেল পৌনে ৪টার দিকে হালিশহর থানার বড়পুল এলাকায় পিডিবি অফিসের অদূরে আড়ং ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটেছে।

মৃত ইরফান আহমেদ (১৮) হালিশহর থানার মইন্যাপাড়া এলাকার ইদ্রিস সওদাগরের ছেলে। তিনি কাট্টলীর মোস্তফা হাকিম ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়িতে কর্তব্যরত নায়েক আব্দুল হামিদ সারাবাংলাকে জানান, বিকেল ৪টার দিকে রক্তাক্ত অবস্থায় ইরফান আহমেদ নামে একজনকে হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেছেন। তার শরীরের বিভিন্নস্থানে ছুরিকাঘাতে জখমের চিহ্ন আছে।

হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম ওবায়দুর রহমান সারাবাংলাকে বলেন, ‘ইরফান ও সাদ্দাম দুই বন্ধু। সম্ভবত তাদের মধ্যে আগে থেকেই কোনো বিষয় নিয়ে ঝগড়া ছিল। আজ (বৃহস্পতিবার) সাদ্দাম তাকে আঘাত করার পরিকল্পনা নিয়ে একটি ছুরি কেনে। আড়ংয়ের সামনে ইরফানকে দেখার পর সাদ্দাম ডাক দেয়। প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানিয়েছেন, সাদ্দাম ও ইরফান প্রথমে কিছুক্ষণ কথা বলেন। এরপর তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সাদ্দাম ইরফানকে ছুরিকাঘাত করেন।’

ইরফানকে হত্যার অভিযোগে আটক মো. সাদ্দাম (১৮) হালিশহর থানার মইন্যাপাড়া এলাকার মো. লালনের ছেলে বলে জানিয়েছেন ওসি।

নগর পুলিশের উপকমিশনার (পশ্চিম) ফারুকুল ইসলাম সারাবাংলাকে বলেন, ‘ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় সাদ্দামকে আটক করেছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি, কথা কাটাকাটির পর বন্ধু সাদ্দাম ইরফানকে ছুরি মেরেছে। সাদ্দামকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন