বৃহস্পতিবার ৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

টেক্সাসের অ্যাপার্টমেন্টে মিললো তিন বছর আগেকার মৃতদেহ

নভেম্বর ২৪, ২০১৯ | ৭:০৬ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসের একটি আবাসিক অ্যাপার্টমেন্ট থেকে মৃত্যুর তিন বছর পর রোনাল্ড ওয়েইন হোয়াইট নামে মার্কিন নৌ বাহিনীর এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ। রোববার (২৪ নভেম্বর) ডিসোটো পুলিশ বিভাগের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।

বিজ্ঞাপন

রোনাল্ডের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতোপূর্বে কয়েকদফা তার নিখোঁজ থাকার ব্যাপারটি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছিল।

অবশেষে, ডিসোটো কমপ্লেক্সের একটি অ্যাপার্টমেন্ট ইউনিটে কেন দীর্ঘদিন ধরে পানি ব্যবহার করা হচ্ছে না, সে বিষয় তদন্ত করতে গিয়ে তিন বছর আগে মারা যাওয়া রোনাল্ডের মৃতদেহ আবিষ্কার করে কর্তৃপক্ষ। ওই কমপ্লেক্সের একজন স্টাফ সদর দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে তার মৃতদেহটি রান্নাঘরের কাছাকাছি পড়ে থাকতে দেখে।

বিজ্ঞাপন

২০১৬ সালে মারা যাওয়ার সময় রোনাল্ডের বয়স ছিল ৫১। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীতে একজন প্রতিরক্ষা ঠিকাদার হিসেবে কাজ করতেন। স্ত্রীর সাথে বিচ্ছেদের পর থেকে তিনি ওই অ্যাপার্টমেন্টে একাই বসবাস করতেন। ব্যবসায়ের কাজে প্রায়শই তাকে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে ভ্রমণ করতে হতো।

রোনাল্ডের মা ডরিস স্টিভেনস যিনি নিউ ইয়র্কের লং আইল্যান্ডে বসবাস করেন। তিন বছর আগে মারা যাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত রোনাল্ডের সাথে তার মায়ের নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। ডরিস স্টিভেনস বিবিসিকে জানান, তিনি কয়েকবারই পুলিশ বিভাগের কাছে তার ছেলের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি নিয়ে গেছেন। কিন্তু, প্রত্যেকবারই পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তার ছেলে প্রাপ্ত বয়স্ক এবং ব্যবসায়ের কাজে প্রচুর ভ্রমণ করে থাকেন, তাই পুলিশের পক্ষে নিখোঁজ কেস চালু করা সম্ভব নয়। ডালাসের একটি স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলের সাথে কথা বলতে গিয়ে ডরিস বলেন, এটা কিভাবে সম্ভব যে আমার ছেলেটা তার অ্যাপার্টমেন্টে মরে তিন বছর পড়ে থাকলো আর দুনিয়ার কেউ সেই খবর পেলো না? কতদিন দুঃখ নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছি, কেউ আমার সন্তানকে খুঁজতে আমাকে বিন্দুমাত্র সহযোগিতাও করেনি।

এদিকে, রোনাল্ড হোয়াইট বসবাস করতেন অ্যাপার্টমেন্টের চার তলার উত্তরপশ্চিম কোণায়। দরজা জানালা সবসময় বন্ধ থাকতো। সে কারনেই হয়তো দীর্ঘদিন তার মৃত্যুর কথা কেউ জানতে পারেনি। পিট স্কাল্ট নামে এই মামলার ভারপ্রাপ্ত গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেছেন, রোনাল্ডের বাড়িভাড়া মাসে মাসে তার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে পরিশোধ করে দেওয়ার ব্যবস্থা ছিল।

তিনি আরও বলেন, তার মৃতদেহ ওই অ্যাপার্টমেন্টে যেভাবে পড়েছিল আর আমরা সেখানে ঢুকে তাকে যেভাবে পেয়েছি সেসবের আলামত থেকে কোনো ধরণের অপরাধের ইঙ্গিতও পাওয়া যায় না।

তবে, রোনাল্ডের মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তানন্তর করার আগে আরও কিছু প্রয়োজনীয় পরীক্ষার মাধ্যমে এই মামলার তদন্ত এগিয়ে নিতে চায় গোয়েন্দা বিভাগ।

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন