রবিবার ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ট্রাভেল ফটোগ্রাফি এক্সিবিশন: এক ছাদের নিচেই যেন পৃথিবী

নভেম্বর ২৮, ২০১৯ | ১০:৫৭ অপরাহ্ণ

আবদুল্লাহ আল মামুন এরিন

সেন্ট অগাস্টিন বলেছিলেন ‘পৃথিবী একটা বই আর যারা ভ্রমণ করে না তারা বইটি পড়তে পারে না।’ সেই পৃথিবী নামের বইয়ের প্রতিটা পৃষ্ঠা যেন ছবি হয়ে উঠে এসেছে এক ছাদের নিচের ছোট ছোট স্পটলাইটগুলোর মধ্যে।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালার লিফট বেঁয়ে ২য় তলায় উঠতেই আপনি পৌঁছে যাবেন লাল, নীল, হলুদ রঙের কাগজে সাজানো এক অন্যরকম জগতে। ঝাঁকে ঝাঁকে উড়তে থাকা কাগজের পাখি আপনাকে স্বাগত জানাবে ‘ট্রাভেলেটস অব বাংলাদেশ – ভ্রমণ কন্যা’ আয়োজনে ‘ট্রাভেল এ্যান্ড ট্রাভেলটস ফটোগ্রাফি এক্সিবিশন সিজন থ্রি’ এর আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে।

হাতের বাঁ পাশের চার নাম্বার গ্যালারিতে ঢুকতেই সাইদুর রহমানের তোলা হলুদ হিমু আর নীল রুপার গল্প, পাশেই আছে বেলাশেষে ফিরে যাওয়া কৃষকদের একটি ছবি যা আপানার মন কাড়বে। এক একটি মুহুর্তকে ধরে রাখার জন্য তোলা হয় ছবি, তা সে যে মোবাইলে তোলা হোক বা ডিজিটাল ক্যমেরা। এই গ্যালারির সব ছবিগুলো মোবাইল ক্যাটাগরির কিন্তু ছবি দেখে আপনি এতোটাই মুগ্ধ হবেন যে যন্ত্রের প্রশ্ন আপনার মাথা থেকেই বের হয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন

সন্ধ্যার মেঘ ভেসে যাওয়া সোনালী আকাশের ছায়া পড়েছে সমুদ্রে আর সেই সমুদ্রে পাড়ে নিজেকে যেনো সপে দিচ্ছেন এক মা এমন ই এক ছবি তুলেছেন ডা. মোহাম্মাদ মাঝহারুল ইসলাম। ঘুরতে ঘুরতে আরও চোখে পড়বে শাহরিক ইস্তিক রাজের আধারী, গ্লেডিসারেন্সিকোর মিল্কওয়েসহ ১০০ টির বেশি মোবাইলে তোলা ছবি।


একই ফ্লোরে একটু ভেতরে ঢুকতেই গ্যালারী ২ এ আছে ডিজিটাল ক্যামেরা ক্যাটাগরির ছবিগুলো। গ্যালারিতে ঢুকতেই হাতের বাম পাশের ছবিটি অবশ্যই নজর কাড়বে দর্শনার্থীদের। আবদুল্লা আল মামুন সুমনের তোলা ছবিটিতে হলুদ শাড়ি পরা মেয়েটি দোলনায় দুলে নিজেকে ভাসিয়ে দিচ্ছে স্বর্গপানে। ছবিটি দেখে যে কারো মনে হবে ইশ! যদি এভাবে নিজেকে ভাসাতে পারতাম শুন্যে! ।

একটু এগোলেই নাসির আহমেদ সৌরভের তোলা ছবিটি দিচ্ছে আরেকটি প্রাণোচ্ছলতার পরিচয়। এক বিশাল ঝর্ণার সামনে দাঁড়িয়ে এক শিল্পী তার ক্যানভাসে রঙ তুলিতে ফুটিয়ে তুলছেন সমস্ত প্রাকৃতিক আর প্রাণবন্ত রমনীর আবেগ।

ছোট ছোট স্পটলাইটের মধ্যে উঠে এসেছে দেশ বিদেশের নানা প্রাকৃতিক ছবি। তার মধ্যে প্যারিসের আইফেল টাওয়ার, ভারতের নানা রাজ্যের ছবি, বিভিন্ন শহর, পাহাড়, সাগর, সূর্যাস্তের ১০০টি ছবি। গ্যালারী ঘুরতে ঘুরতে চোখে পড়বে ‘ট্রাভেলেটস অব বাংলাদেশ – ভ্রমণ কন্যা’দের ৬৪ জেলা ভ্রমনের ছবিগুলোও। তাছাড়াও মিলছে পাহাড়ের সাথে পাহাড়ি সাজে ছবি তুলার সুযোগ।

ছবি দেখতে দেখতে দেখা হয়ে গেলো ‘ট্রাভেলেটস অব বাংলাদেশ – ভ্রমণ কন্যা’র কর্ণধার ডা. সাকিয়া হকের সাথে। তিনি বলছিলেন ‘এবার ভারত-নেপাল ভুটানসহ কয়েকটা দেশ থেকে আমরা ছয় হাজার একশ ছবি পেয়েছি যার মধ্যে থেকে দু’শ ছবি সিলেক্ট করে আমাদের এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। তাছাড়া আমাদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং ম্যাগাজিন, সবকিছু মিলিয়ে এবারের প্রদর্শনী অন্য মাত্রা পেয়েছে। আশা করি ভালোভাবে শেষ করতে পারব’।

এই প্রদর্শনীতে জায়গা পেয়েছে ট্রাভেল ফটোগ্রাফি, ওয়াইল্ড-লাইফ ফটোগ্রাফি, ন্যাচার ফটোগ্রাফি। গতকাল ২৭ নভেম্বর এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। চলবে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। সবার জন্যই উন্মুক্ত এই প্রদর্শনী।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএএমএ/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন