রবিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ১ পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ক্ষমতার লোভে শিবসেনা আদর্শিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে: ফাড়নবিশ

ডিসেম্বর ২, ২০১৯ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের মহারাষ্ট্রে নানা নাটকীয়তার পর বিধানসভার প্রধান প্রধান পদগুলো বন্টিত হয়েছে। শিবসেনার উদ্ধব ঠাকরে পেয়েছেন বহুল আকাঙ্ক্ষিত মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব। নাটকীয়ভাবে শপথ  নিয়ে কয়েকদিন মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকায় থাকা ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) দেবেন্দ্র ফাড়নবিশ এখন পালন করছেন বিরোধীদলীয় নেতার ভূমিকা। রোববার (১ ডিসেম্বর) বিধানসভার প্রথম অধিবেশনেই তিনি তাদের সাবেক মিত্র শিবসেনাকে আক্রমণ করে বলেন, ক্ষমতার লোভে শিবসেনা আদর্শিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। তাদের জোট গঠনের যে অভিন্ন আদর্শ হিন্দুত্ববাদ, তার সাথে সমঝোতা করে, শিবসেনা এখন যোজন যোজন দূরে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া।

বিজ্ঞাপন

ফাড়নবিশের এমন অভিযোগ আমলে নিয়ে জবাব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। তিনি বলেছেন, শিবসেনা হিন্দুত্ববাদ থেকে দূরে সরে যায়নি। ভবিষ্যতে এমন হওয়ার কোনো সম্ভাবনাও নেই।

তিনি আরও বলেন, বিগত পাঁচ বছরে তার দল এমন কোনো কাজ করেনি যা কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে যায়। ফাড়নবিশকে এখনও তিনি বন্ধুই মনে করেন। তার কাছে বিভিন্ন জিনিস শেখার সুযোগ পেয়েছেন। হিন্দুত্ববাদী আদর্শ থেকে দূরে সরে যাওয়ার কোনো প্রশ্নই আসেনা।

এর আগে, মহারাষ্ট্র বিধানসভায় নতুন স্পিকারের দায়িত্ব নেওয়া কংগ্রেস দলের নানা পাটোলে অ্যাসেম্বলির বিরোধী দল হিসেবে বিজেপি এবং বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে ফাড়নবিশের নাম ঘোষণা করেন। ওই ঘোষণার মধ্য দিয়ে মহারাষ্ট্রে রাজ্য সরকার গঠন নিয়ে এক মাসের অচলাবস্থার অবসান হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে তার বক্তব্যে আরও বলেন, তিনি সত্যিই ভাগ্যবান মুখ্যমন্ত্রী। যারা তার বিরোধীতা করেছিলেন আজ তারাই মিত্র হয়েছেন আর জোটসঙ্গী যারা ছিলেন তারা বসেছেন বিরোধীদলে। তার সাথে আছে তার ভাগ্য আর মানুষের ভালোবাসা। তিনি কোনোদিন কাউকে বলেননি এখানে পৌঁছাবেন কিন্তু পৌঁছে গেছেন। এছাড়াও মহারাষ্ট্রের বুলেট ট্রেন প্রকল্পটির ব্যাপারে আবার তারা ভেবে দেখবেন বলে বক্তব্যে উল্লেখ করেছেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন