বিজ্ঞাপন

বয়স লুকানোয় নিষিদ্ধ ভারতীয় ক্রিকেটার

December 3, 2019 | 8:23 am

স্পোর্টস ডেস্ক

নিজের প্রকৃত বয়স লুকিয়ে খেলার জন্য ভারত ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে তাদের এক ক্রিকেটারকে। নিষিদ্ধ হওয়া এই ক্রিকেটারের নাম প্রিন্স রাম নিবাস যাদব।

বিজ্ঞাপন

যাদবের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসে তিনি একাধিকবার তার জন্মসনদ পরিবর্তন করেছেন অনূর্ধ্ব ১৯ দলের হয়ে খেলার জন্য। দিল্লি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের অধীনে ২০১৮-১৯, ২০১৯-২০ টানা দুই মৌসুমের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন এই ক্রিকেটার। কিন্তু বিপত্তি বাধায় তার জন্মসনদ।

স্কুল সার্টিফিকেটে যাদবের জন্ম তারিখ দেয়া ১৯৯৬ সালের ১০ জুন। কিন্তু জন্মসনদে জন্ম তারিখে দেয়া ২০০১ সালের ১২ ডিসেম্বর। এই ঘটনাই সন্দেহের তীর ছুড়ে মারে তার দিকে।

বিজ্ঞাপন

অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করতে গিয়ে তার উপর সন্দেহ হলে শুরু হয় তদন্ত। তদন্তে বেরিয়ে আসে প্রিন্স রাম তার বয়স ৫ বছর কারচুপি করেছেন।

দিল্লি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের (ডিডিসিএ) এক কর্মকর্তা জানান, 'আমরা বিসিসিআইয়ের কাছ থেকে প্রিন্স যাদব নামের এক ক্রিকেটারের বয়স চুরির অভিযোগ সংক্রান্ত একটা নোটিশ পেয়েছি। বিসিসিআই নিশ্চিত এই ছেলে ২০১২ সালে এসএসসি পাস করেছে, জন্মেছে ১৯৯৬ সালের ১০ জুনে।'

তদন্তে বয়স কারচুপির ঘটনা প্রমাণিত হবার ফলে বিসিসিআই সকল প্রকার ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে রান নিবাসকে।

বিসিসিআই তাদের এক বার্তায় জানায়, ‘এখন থেকে প্রিন্স যাদব বিসিসিআইয়ের সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দুই বছর নিষিদ্ধ থাকবেন। ২০২০-২১ ও ২০২১-২২ মৌসুমে খেলতে পারবেন না। দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা শেষেই কেবল তিনি ফিরতে ‍পারবেন সিনিয়র পর্যায়ের ক্রিকেটে।’

উপমহাদেশে বয়স চুরির ঘটনা নতুন কিছু নয়। তারকা খেলোয়াড়দেরও বয়স চুরির রেকর্ড আছে উপমহাদেশে। কিছুদিন আগেই সাবেক পাকিস্তানি খেলোয়াড় শহীদ আফ্রিদি নিজের বয়স ৩ বছর কমিয়ে খেলেছিলেন বলে স্বীকার করেছিলেন। এরপর প্রশ্ন উঠেছিল পাক পেসার নাসিম শাহকে নিয়ে।

সারাবাংলা/এনএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন