রবিবার ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

দেশি ফুটবলে ইউরোপীয় দর্শনের প্রতিচ্ছবি

ডিসেম্বর ৫, ২০১৯ | ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশের ফুটবলে গত কয়েকবছর ধরে পেশাদারিত্বের ছাপ পড়ছে। ধীরে ধীরে অন্তত ক্লাব ফুটবলে পেশাদারিত্ব বাড়ছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হয়ে উঠছে। ফুটবলে আরও গতি নিয়ে আসতে প্রযুক্তিগত উৎকর্ষও বাড়ছে। জিপিএস থেকে শুরু করে ভিডিও বিশ্লেষক সফটওয়্যারের মতো আধুনিক প্রযুক্তির সংযোজন হচ্ছে দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের ক্লাবগুলোর ডেরায়। তাতে করে বিশ্ব ফুটবলের ক্লাবগুলোর নজর পড়ছে বাংলাদেশে। তাই যুক্তরাষ্ট্র থেকে শুরু করে সুইডেন, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কোস্টারিকার মতো বিশ্বকাপ খেলুড়ে দেশগুলো থেকে খেলোয়াড়েদের আগ্রহ বাড়ছে।

বিজ্ঞাপন

এরই ধারাবাহিকতায় নতুন এক দর্শনের সংযোজন হচ্ছে দেশের ফুটবলে। ইউরোপীয় দর্শনে ক্লাবগুলো প্রস্তুতি নিচ্ছে আসন্ন লিগকে সামনে রেখে।

আগামী ১৮ ডিসেম্বর থেকে ফেডারেশন কাপ দিয়ে শুরু হবে দেশের সর্বোচ্চ ক্লাবগুলোর ফুটবল মৌসুম। আগে প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট হিসেবে ফেডারেশন কাপে অংশ নিত ক্লাবগুলো। এবার আর সেই পথে হাঁটতে চায় না কেউই। বরং পেশাদারিত্ব পুরোপুরি কার্যকর করতে প্রাক-মৌসুমে ইউরোপের আদলে প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট খেলছে বসুন্ধরা কিংস-সাইফ স্পোর্টিংয়ের মতো ক্লাবগুলো।

বিজ্ঞাপন

ইউরোপে মেসি-রোনালদোদের লিগ শুরুর আগে প্রস্তুতি হিসেবে একটা টুর্নামেন্টের আয়োজন হয়ে থাকে। ঠিক সেই আদলে এবার বাংলাদেশেও ডিএফএ চ্যালেঞ্জ টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে ক্লাবগুলো। টুর্নামেন্টে লিগকে সামনে রেখে নিজেদের প্রস্তুতি যাচাইয়ে মাঠে নামছে তারা। সেখানে অংশ নিচ্ছে চট্টগ্রাম আবাহনী, সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, বসুন্ধরা কিংস ও পুলিশ এফসির মতো ক্লাব।

এই দর্শনের পেছনে মাস্টারমাইন্ড দেশের অন্যতম সেরা কোচ মারুফুল হক। দেশের একমাত্র উয়েফা প্রো লাইসেন্সপ্রাপ্ত এই কোচই সর্বপ্রথম এই চিন্তা নিয়ে সামনে আসেন। এরই মধ্যে চট্টগ্রাম আবাহনী ও পুলিশ এফসি একটি ম্যাচও খেলে ফেলেছে টুর্নামেন্টে। ম্যাচটি ২-২ স্কোরে ড্র হয়েছে।

শুধু তাই নয়, প্রতিবার যেটা হয়, ফেডারেশন কাপের পর স্বাধীনতা কাপ ও তারপর লিগ শুরু হয়। এবার তা হবে না। ইউরোপীয় ঢঙে এবার লিগের মাঝেই স্বাধীনতা কাপের ম্যাচগুলোও আয়োজন হবে।

এ বিষয় পেশাদার লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী সারাবাংলাকে বলেন, প্রতিবার যা হয়, এবার তা হবে না। এবার পেশাদারিত্ব বাড়াতে আমরা লিগের মাঝেই স্বাধীনতা কাপ চালাব। ক্লাবগুলোও রাজি হয়েছে।

লিগ শুরু হবে জানুয়ারিতে। এর আগে ১৮ ডিসেম্বর শুরু হবে ফেডারেশন কাপ। ফুটবলের বাৎসরিক ক্যালেন্ডারের এই পরিবর্তনকে ইতিবাচক বলেই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তাদের প্রত্যাশা, এমন সব ইতিবাচক পরিবর্তনে বদলে যাক দেশের ফুটবল।

সারাবাংলা/জেএইচ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন