বিজ্ঞাপন

খালেদা জিয়াকে বাঁচাতে এখনই জামিন দরকার: রিজভী

December 8, 2019 | 7:45 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বাঁচাতে হলে এখনই তার জামিন এবং সুচিকিৎসা দরকার বলে জানিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিজ্ঞাপন

রোববার (৮ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

রিজভী বলেন, ‘দেশনেত্রীকে বাঁচাতে হলে এখনই জামিন ও সুচিকিৎসা দরকার। তাই জনগণের পক্ষ থেকে সরকারকে আমরা বলতে চাই, দেশনেত্রীর জামিন নিয়ে এবার কোনো রকমের টালবাহানা করে তাঁর মুক্তিতে বাধা দেবেন না। আপনাদের সকল গণভিত্তি কর্পুরের মতো উবে গেছে।’

বিজ্ঞাপন

‘শেখ হাসিনার স্বনির্মিত দুঃশাসনের শৃঙ্খল থেকে জনগণকে মুক্ত করতে হবে। মানুষের ক্ষোভ ও বঞ্চনা সংহত করে তা আন্দোলনে রূপদান করতে জনগণ রাজপথে নামতে শুরু করেছে’— দাবি করেন রুহুল কবির রিজভী।

তিনি জানান, মুজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, বকেয়া মুজুরি পরিশোধসহ ১১দফা দাবি আদায়ে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল সিবিএ ও ননসিবিএ সংগ্রাম পরিষদের ডাকে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে শ্রমিকেরা। দীর্ঘদিন ধরে মুজুরি না পেয়ে চরম অর্থসংকটে রয়েছে শ্রমিকদের পরিবার-পরিজন। পরিবার-পরিজনদের মুখের আহার জোটাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে শ্রমিকদের।

শ্রমিকদের দাবির প্রতি শ্রমিকদের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘একদিকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি অন্যদিকে শ্রমিকদের দাবি বাস্তবায়নে সরকারের উদাসীনতা অসহনীয় পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। আগামী ১০ ডিসেম্বর সকাল ৮টা থেকে পাটকল শ্রমিক কর্মচারী ও তাদের পোষ্যদের নিয়ে স্ব স্ব মিলগেটে আমরণ অনশন কর্মসূচিতে যাচ্ছে শ্রমিকরা। অবিলম্বে শ্রমিকদের সব দাবি মেনে নেওয়ার আহবান জানাচ্ছে বিএনপি। জনগণের আস্থার রাজনৈতিক দল হিসেবে শ্রমিকদের এই দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন থাকবে বিএনপির।’

রিজভী জানান, খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রোবববার (৮ নভেম্বর) বিক্ষোভ কর্মসূচি চলাকালে দেশের বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হামলা ও নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তার একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণী তুলে ধরেন তিনি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ

রিজভী জানান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণে বিক্ষোভ কর্মসুচি চলাকালে পুলিশ ও আওয়ামী কর্মীদের আক্রমণে কোতয়ালী থানা বিএনপি নেতা লিমন, চকবাজার থানা বিএনপির নেতা আতিক, মঈন, হৃদয়সহ পাঁচজন এবং শাহবাগ থানার আবদুর রশিদ, সুমন, শাকিল, সুজনসহ ১০/১২ জন আহত ও শাহবাগ থানা বিএনপির মো. রফিক নামে একজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

সিরাজগঞ্জ

বিক্ষোভ কর্মসূচি চলাকালে সিরাজগঞ্জ শহরে বিএনপি মিছিলের ওপর আওয়ামী লীগের কর্মীরা হামলা করে বলে অভিযোগ করেন রিজভী। তিনি জানান, হামলায় জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শামীমের চোখে রাবার বুলেট লেগেছে। তিনি গুরুতর আহত। হামলায় অন্তত আটজন নেতাকর্মী গুলিতে আহত হয়েছেন। পুলিশের সহায়তায় আওয়ামী কর্মীরা বিএনপির বিক্ষোভ কর্মসূচিতে হামলা করেছে এবং দলীয় কার্যালয়ে আগুনসহ নেতাকর্মীদের বাড়ি ভাঙচুর করেছে।

ফরিদপুর

রিজভীর অভিযোগ, ফরিদপুর জেলা বিএনপির মিছিলে পুলিশ হামলা চালায়। এতে অনেক নেতাকর্মী আহত হয়।

কর্মসূচি

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আগামী ১০ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে জেলা ও মহানগরে বিএনপির উদ্যোগে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, মীর সরাফত আলী সপু প্রমুখ।

সারাবাংলা/এজেড/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন