বিজ্ঞাপন

ইউনেস্কো সদর দপ্তরে পূজা সেনগুপ্ত

December 9, 2019 | 3:05 pm

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

বাংলাদেশের নৃত্য জগতের সাম্প্রতিক সময়ের আলোচিত একটি নাম- পুজা সেনগুপ্ত। যিনি একাধারে নৃত্যশিল্পী, নৃত্য নির্দেশক ও আর্টিস্টিক ডিরেক্টর। যার নৃত্য পরিধি দেশের গণ্ডি পেরিয়ে ছড়িয়ে পরেছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও। সমাদৃত হচ্ছেন সব মহলে।

বিজ্ঞাপন

ইউনেস্কো সদর দপ্তরে পূজা সেনগুপ্ত

সম্প্রতি পূজা সেনগুপ্ত অংশ নিয়েছিলেন ফ্রান্সের প্যারিসে ইউনেস্কো সদর দপ্তরে ইন্টারন্যাশনাল ড্যান্স কাউন্সিল ইউনেস্কোর ২৩ তম দ্বিবার্ষিক সাধারন সভায়। সেখানে প্রথম বাংলাদেশি নৃত্যশিল্পী হিসেবে তিনি গেলো ৪ ডিসেম্বর ইউনেস্কো সদর দপ্তরে বক্তব্য রাখেন। তিন মিনিটের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বাংলাদেশের নাচে পেশাদারিত্ব প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে তার সংগঠন তুরঙ্গমীর কার্যক্রম, বাংলাদেশের নাচ ও সংস্কৃতি এবং সামগ্রিকভাবে বাংলাদেশের নৃত্যশিল্পীদের কথা তুলে ধরেন পূজা। বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মানের নৃত্য-প্রশিক্ষন, গবেষণা ও কর্মশালা পরিচালনার জন্য বিশ্বের স্বনামধন্য নৃত্য প্রশিক্ষকদের ঢাকায় আমন্ত্রণ জানান তিনি। সেই সাথে বাংলাদেশের নৃত্যশিল্পীদের নিয়ে আন্তর্জাতিকমানের প্রযোজনা নির্মাণের জন্য আন্তর্জাতিক নৃত্য প্রযোজনা নির্মাতা সংস্থাগুলোকে বাংলাদেশের নাচের অঙ্গনে বিনিয়োগ করার আহবান জানান।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৩১ জানুয়ারি বাংলাদেশের নাচে পেশাদারিত্ব প্রতিষ্ঠা এবং বাংলাদেশের নিজস্ব সমসাময়িক নৃত্যধারা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে ‘তুরঙ্গমী রেপার্টরি ড্যান্স থিয়েটার’ যা বাংলাদেশের প্রথম নাচভিত্তিক রেপার্টরি। ২০১৮ সালে তুরঙ্গমী রেপার্টরির চার বছর পূর্তিতে শুরু হয় ‘তুরঙ্গমী স্কুল অব ড্যান্স’র কার্যক্রম। প্রথাগত নৃত্যশিক্ষার পাশাপাশি নাচের ওপর গবেষণাভিত্তিক কাজ করছে এই ডান্স স্কুল। ২০১৯ সালের ৩১জুলাই ইন্টারন্যাশনাল ড্যান্স কাউন্সিল ইউনেস্কোর সদস্যপদ লাভ করে তুরঙ্গমী স্কুল অব ড্যান্স এবং ব্যক্তিগতভাবে পূজা সেনগুপ্ত।

সারাবাংলা/এএসজি/পিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন