বুধবার ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

নিজেকে শিষ্যদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চান গিবস

ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ | ৭:৪৪ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

উইকেটের একপ্রান্তে গ্যারি কারস্টেনের সতর্ক শুরু আর অপরপ্রান্তে হার্শেল গিবসের মারকুটে ব্যাটিং। গিবসের সেই ভয়-ডরহীন ব্যাটিংয়ে তছনছ হয়ে যেত প্রতিপক্ষের বোলিং লাইন আপ। ব্যাটিং দক্ষতাও ছিল অসাধারণ। যা কিনা প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে সাফল্যের মুখ দেখাতো। খেলোয়াড়ি জীবনের সেই ভীতিহীন ব্যাটিং শৈলি এবার শিষ্যদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চান বঙ্গবন্ধু বিপিএলে সিলেট থান্ডার্সের প্রধান কোচ হয়ে আসা সাবেক এই প্রোটিয়া ওপেনার।

বিজ্ঞাপন

অন্যান্য দলের নিজ দলে খুব বড় কোন নাম নেই, গিবস সেটা ভাল করেই জানেন। তাতে অবশ্য তার কোন আক্ষেপ নেই। বরং আর এই ব্যাপারটিকেই শক্তি হিসেবে দেখছেন তিনি। এতে করে দল চাপমুক্ত থাকবে যা কিনা তার শিষ্যদের অলআউট  ক্রিকেট খেলতে উদ্বুদ্ধ করবে।

‘দেখেন আমি শক্তি, দক্ষতা ও অপরিসীম আবেগ নিয়ে ক্রিকেট খেলেছি। সেই ব্যাপারটিই আমি আমার শিষ্যদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চাই যাতে করে তারা ভীতিহীন ক্রিকেট খেলতে পারে। এবং কোচ হিসেবে আমার ভূমিকা আমি উপভোগ করতে চাই। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যেসব ক্রিকেটার এখনো খেলেনি বিপিএল তাদের জন্য অনেক বড় একটি মঞ্চ। কিন্তু তাই বলে বিষয়টি এমন নয় যে  তাদের ভেতরে মেধা নেই। আগামি কয়েক সপ্তাহ তাদের সেটাই বিশ্বাস করাতে চেস্টা করব।’

বিজ্ঞাপন

‘এটা ঠিক আমাদের দলে বড় কোন নাম নেই যা অন্য দলে আছে। এর মানে হল আমরা স্বাধীনতা নিয়ে খেলতে পারব। আপনি যতই অপরিচিত হবেন তত ভাল খেলবেন। আমি দলের সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের মধ্যে যে রোমাঞ্চ দেখেছি সেটা দলের জন্য ভাল কিছুরই ইঙ্গিত বহন করে।’ যোগ করেন গিবস।

বুধবার (১০ ডিসেম্বর) চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএল মিশন শুরু করবে হার্শেল গিবস শিষ্যরা। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টায়।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এনএ

Advertisement
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন