রবিবার ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

সাংবাদিকদের অবস্থান কর্মসূচিতে উত্তাল এসএ টিভি, এমডি অবরুদ্ধ

ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ | ১০:৫১ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদ ও বেতন-ভাতার দাবিতে এসএ টিভির সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন সংবাদকর্মীরা। দফায় দফায় বৈঠক করলেও সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে মালিকপক্ষ কোনো সমঝোতায় আসতে না পারলে তারা এসএ টিভির কার্যালয়ও অবরোধ করেছেন। এতে করে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন বেসরকারি টিভি চ্যানেলটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সালাউদ্দিন আহমেদ। সংবাদকর্মীসহ সাংবাদিক নেতারা জানিয়েছেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা অবরোধ চালিয়ে যাবেন।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, বিক্ষোভ করলেও টিভির সম্প্রচার কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে আন্দোলনরত সংবাদকর্মীরা বিভিন্ন শিফটে ভাগ হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। চ্যানেলটির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্যও। তবে কার্যালয়ের মূল ফটক বন্ধ থাকায় তারা ভেতরে প্রবেশ করতে পারছেন না।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুর থেকেই কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন এসএ টিভি থেকে অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুত সংবাদকর্মীরা। পরে দুপুর সাড়ে ৩টা থেকে এমডি সালাউদ্দিন আহমেদের সঙ্গে বৈঠক করেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) নেতাসহ আন্দোলনরত সংবাদকর্মীরা। এসময় দফায় দফায় বৈঠক হলেও মালিকপক্ষ সাংবাদিকদের কোনো দাবি মেনে নিতে রাজি হয়নি।

বিজ্ঞাপন

পরে বৈঠক শেষে ডিইউজে সভাপতি আবু জাফর সূর্য কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেওয়া সাংবাদিকদের বলেন, মালিকপক্ষ আমাদের কোনো দাবি মেনে নেয়নি। তারা কোনো ধরনের সমঝোতায় আসতে রাজি হননি। ফলে কর্মী ছাঁটাই ও বেতন-ভাতার দাবিতে আমাদের সাংবাদিকদের টানা অবস্থান কর্মসূচি চলবে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি থামবে না।

এখন পর্যন্ত সংবাদকর্মীরা চ্যানেলটির সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছেন। মালিকপক্ষকে দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে মুহুর্মুহু স্লোগান দিচ্ছেন তারা। তবে টিভির সম্প্রচার কার্যক্রম যেন ব্যাহত না হয়, তা নিশ্চিত করতে আন্দোলনরত কর্মীরাও শিফটিংয়ের ভিত্তিতে দায়িত্ব পালন করছেন। তাদের সঙ্গে এ আন্দোলনে সংহতি জানাতে উপস্থিত হয়েছেন অন্যান্য বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সহকর্মী সাংবাদিকরাও।

এদিকে, এসএ টিভির সংবাদকর্মীদের আন্দোলনে সংহতি জানিয়েছে সম্প্রচার সাংবাদিক কেন্দ্র (বিজেসি)। সংগঠনটির চেয়ারম্যন রেজোয়ানুল হক ও সদস্য সচিব শাকিল আহমেদ এক বিবৃতিতে বলেন, যেকোনো টেলিভিশনে এ ধরনের পরিস্থিতি অনাকাঙ্ক্ষিত। সাংবাদিক, ইউনিয়ন ও এসএ টিভির কর্মীদের ত্রিপাক্ষিক যে চুক্তি হয়েছে, তার বাস্তবায়ন চাই। কেউ অন্যায্যভাবে চাকরিচ্যুত হোক, বিজেসি সেটা আশা করে না। যারা ক্ষতিগ্রস্ত, তাদের আইনিসহ সার্বিক সহায়তা দিতে প্রস্তুত ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টার। এ বিষয়ে সরকারের উচ্চ মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সারাবাংলা/জেডএফ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন