বিজ্ঞাপন

মেট্রোরেলসহ ২ প্রকল্পে আড়াই হাজার কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি

December 11, 2019 | 11:52 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৫ নর্দান রুট, তথা মেট্রোরেলের নতুন লাইন নির্মাণের সম্ভাব্যতা সমীক্ষাসহ দুই প্রকল্পে আড়াই হাজার কোটি টাকারও বেশি ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এ বিষয়ে এডিবি’র সঙ্গে সরকারের আলাদা আলাদা দুইটি চুক্তি সই হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে চুক্তি দুইটি সই হয়। সরকারের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মো. মনোয়ার আহমদ ও এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ নিজ নিজ পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

চুক্তি অনুযায়ী এমআরটি লাইন-৫ নর্দার্ন রুট ও ঢাকা অ্যান্ড ওয়েস্টার্ন জোন ট্রান্সমিশন গ্রিড এক্সপানসন প্রকল্পে ৩৩ কোটি ৩২ লাখ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২ হাজার ৮৩২ কোটি টাকা) ঋণ দেবে এডিবি।

বিজ্ঞাপন

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে মনোয়ার আহমেদ বলেন, প্রকল্প দু’টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একদিকে যানজট নিরসন এবং অন্যদিকে বিদ্যুৎ সরবরাহে কাজ করবে প্রকল্প দুইটি। আমরা আশা করছি, সুষ্ঠুভাবে প্রকল্প দু’টি বাস্তবায়নের মাধ্যমে সঠিক লক্ষ্য পূরণ হবে।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মেট্রোরেল লাইন-৫ প্রকল্পের পূর্ত কাজের জন্য বিশদ সম্ভব্যতা সমীক্ষা, ইঞ্জিনিয়ারিং ডিজাইন ও প্রকিউরমেন্ট দলিল প্রস্তুত করতে এডিবির ঋণের অংশ ব্যয় করা হবে। এ অংশের মোট প্রাক্কলিত ব্যয় ৪৪ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে এডিবি বাংলাদেশ সরকারকে ৩৩ দশমিক ২৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহজ শর্তের ওসিআর ঋণ দিচ্ছে। এই ঋণ ৫ বছর গ্রেস পিরিয়ডসহ ২৫ বছরে পরিশোধযোগ্য। এর বার্ষিক সুদের হার ২ শতাংশ। প্রকল্পের বাকি টাকা সরকারের তহবিল থেকে ব্যয় করা হবে।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে আরও বলা হয়, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের আওতায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড। প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ হবে ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত। এ ঋণের উদ্দেশ্য ঢাকা শহরের যনজট নিরসন করে ঢাকা ও ঢাকার আশপাশে বসবাসকারীদের জন্য পরিবেশবান্ধব, নারীবান্ধব, নিরাপদ ও সাশ্রয়ী পরিবহন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা।

এডিবির ঋণের আওতায় থাকা দ্বিতীয় প্রকল্পটি পাঁচ বছর মেয়াদে বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় সর্বমোট ৭৫ কোটি ডলার। এর মধ্যে এডিবি বাংলাদেশ সরকারকে ৩০ কোটি ডলার অর্ডিনারি ক্যাপিটাল রিসোর্সেস ঋণ এবং চীনের পোভার্টি রিডাকশন অ্যান্ড রিজিওনাল কো-অপারেশন ফান্ড থেকে ৭ লাখ ৫০ হাজার ডলার অনুদান দেবে। এডিবি ছাড়াও এই প্রকল্পে সহ-অর্থায়নকারী হিসেবে ২০ কোটি ডলার ঋণ দেবে এশিয়ান ইনফ্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (এআইআইবি)। বাকি ২৪ কোটি ৯২ লাখ ডলার সরকার ও সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে জোগান দিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

এডিবি’র এই ঋণের গ্রেস পিরিয়ড ৫ বছর, ঋণ পরিশোধযোগ্য ২৫ বছরে। সুদের হার ইউরো ইন্টার ব্যাংক অফার্ড রেট-ভিত্তিক। এছাড়া ওসিআর ঋণের জন্য শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ হারে ম্যাচুরিটি প্রিমিয়াম এবং অব্যয়িত অর্থের ওপর শূন্য দশমিক ১৫ শতাংশ হারে কমিটমেন্ট চার্জ দিতে হবে।

সারাবাংলা/জেজে/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন