array(4) {
  [0]=>
  string(89) "https://sarabangla.net/wp-content/uploads/2019/12/khulna_japan_somiti_festival_-30x23.jpg"
  [1]=>
  int(30)
  [2]=>
  int(23)
  [3]=>
  bool(true)
}
array(4) {
  [0]=>
  string(90) "https://sarabangla.net/wp-content/uploads/2019/12/khulna_japan_somiti_festival_1-30x23.jpg"
  [1]=>
  int(30)
  [2]=>
  int(23)
  [3]=>
  bool(true)
}
array(4) {
  [0]=>
  string(89) "https://sarabangla.net/wp-content/uploads/2019/12/khulna_japan_somiti_festival_-30x23.jpg"
  [1]=>
  int(30)
  [2]=>
  int(23)
  [3]=>
  bool(true)
}
array(4) {
  [0]=>
  string(90) "https://sarabangla.net/wp-content/uploads/2019/12/khulna_japan_somiti_festival_1-30x23.jpg"
  [1]=>
  int(30)
  [2]=>
  int(23)
  [3]=>
  bool(true)
}
জাপানে জিকেসিজে’র আয়োজনে নবান্ন উৎসব

বিজ্ঞাপন

জাপানে জিকেসিজে’র আয়োজনে নবান্ন উৎসব

December 12, 2019 | 2:59 am

সারাবাংলা ডেস্ক

জাপানের টোকিও শহরে দ্বিতীয়বারের মতো নবান্ন উৎসব পালন করল সেখানে বসবাসরত বাংলাদেশিরা। দূর প্রবাসে বাংলার প্রাণের ঐতিহ্য মেনে উৎসবে ছিল চাল ও চালের গুড়ি দিয়ে তৈরি বাহারি খাবার, আকর্ষণীয় মিষ্টান্ন, রকমারি পিঠা ও সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।

বিজ্ঞাপন

রোববার (৮ ডিসেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল ৬টায় টোকিওর তাকিনোগাওয়াকাইকান হলে এই নবান্ন উৎসবের শুরু হয়। জাপানে বৃহত্তর খুলনা সমিতির (জিকেসিজে) এই আয়োজনের উদ্যোক্তা। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

পাঁচ পর্বের উৎসব আয়োজনে ছিল, নবান্নের গান, নবান্নের কবিতা, নবান্নের নৃত্য ও আনন্দ কনসার্ট। সাংস্কৃতিক পর্বে শিল্পীরা নাচে-গানে মাতিয়ে তোলে উৎসব। পরিবেশন করা হয় খুলনার একাধিক আঞ্চলিক গান। মন মাতানো নবান্ন উৎসবে জাপানের বাংলাদেশ দূতাবাসের শীর্ষ কর্মকর্তাসহ প্রায় পাঁচ শতাধিক বাঙালি উপস্থিত ছিলেন।

জিকেসিজে সভাপতি গুল মোহাম্মদ ঠাকুর, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান, রুনা আহমেদ, বহ্নি আহমেদ, গোলাম মাসুম, তানিজা শারমিনসহ স্বেচ্ছাসেবক দল গোটা আয়োজন সফল করে তোলেন।

তানিজা শারমিন ও বহ্নি আহমেদ জানান, আগামীতে আরও বৃহত্তর পরিসরে তারা এ ধরনের আয়োজনের পরিকল্পনা করছেন।

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন