বিজ্ঞাপন

আমজাদ হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল

December 13, 2019 | 1:39 pm

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেট

প্রখ্যাত নির্মাতা, অভিনেতা, লেখক ও প্রযোজক আমজাদ হোসেনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল ১৪ ডিসেম্বর। গত বছরের এ দিনে তিনি ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

বিজ্ঞাপন

আমজাদ হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএফডিসিতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। সকাল এগারোটা থেকে এ আয়োজন শুরু হবে। এছাড়া তার জন্মস্থান জামালপুরেও করা হয়েছে নানা আয়োজন।

জামালপুরের উদীচী, খেলাঘরসহ ৭০টি সংগঠনের অংশগ্রহণে এক শোক র‍্যালি অনুষ্ঠিত হবে।  জামালপুরের জেলা প্রশাসক ও আশেক মাহমুদ কলেজের প্রিন্সিপালের নেতৃত্বে আয়োজিত এ শোক র‌্যালি সকাল ১০টায় কামালতলা মোড় থেকে শুরু হয়ে আমজাদ হোসেন শায়িত পৌর কবরস্থানে গিয়ে শেষ হবে।

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হওয়ায় গত বছরের ১৮ নভেম্বর রাজধানীর তেজগাঁওয়ের ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি করা হয় আমজাদ হোসেনকে। হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। বরেণ্য এই নির্মাতার শারীরিক অসুস্থতার খবর শুনে হাসপাতালে ভর্তির তিন দিনের মাথায় তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়ার আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমজাদ হোসেনের উন্নত চিকিৎসার খরচ বাবদ ২০ লাখ টাকা এবং এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া বাবদ ২২ লাখ টাকা পরিবারের হাতে তুলে দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

‘বাল্যবন্ধু’, ‘পিতাপুত্র’, ‘এই নিয়ে পৃথিবী’, ‘বাংলার মুখ’, ‘নয়নমণি’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সুন্দরী’, ‘কসাই’, ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’, ‘দুই পয়সার আলতা’, ‘সখিনার যুদ্ধ’, ‘ভাত দে’, ‘হীরামতি’, ‘প্রাণের মানুষ’, ‘সুন্দরী বধূ’, ‘কাল সকালে’, ‘গোলাপী এখন ঢাকায়’, ‘গোলাপী এখন বিলেতে’ ইত্যাদি আমজাদ হোসেন পরিচালিত ছবি। তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

সারাবাংলা/এজেডএস/

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন