রবিবার ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

তামিম-এনামুলে ভর করে বড় সংগ্রহ যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুনের

ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯ | ৮:১২ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে সিলেট থান্ডারকে জয়ের জন্য ১৮৩ রানের লক্ষ্য বেঁধে দিয়েছে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুন। নির্ধারত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে মাশরাফি বাহিনীর সংগ্রহ ১৮২ রান।

বিজ্ঞাপন

শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টসে জিতে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুনকে ব্যাট করতে পাঠায় সিলেট থান্ডার। ব্যাট করতে নেমে শুরুটা বেশ জমজমাটই করেন তামিম এবং এনামুল হক বিজয়। সিলেটের বোলারদের তুলোধুনা করে গড়েন ৫০ রানের উদ্বোধনী জুটি।

দলীয় ৮৫ রানে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন তামিম ইকবাল। তবে তার আগে খেলেন ২৮ বলে ৩১ রানের অনাবদ্য এক ইনিংস।

বিজ্ঞাপন

তামিমের বিদায়ে থেমে যাননি এনামুল। উইকেট আগলে রেখে তুলে নেন বিপিএলের এবারের আসরের ব্যক্তিগত প্রথম অর্ধশতক। এরপর এগিয়ে যেতে থাকেন নিজের শতকের দিকে। কিন্তু তাকে ৬২ রানে থামিয়ে দেন সিলেটের বোলার দেলোয়ার হোসেন। ৪২ বলে ৬২ রান করে মোসাদ্দেক হোসেনের তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফিরে যান এই ওপেনার।

কিন্তু তাতেও যেন কিছুতেই কিছু হচ্ছিলো না যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুনের। লরি ইভান্স এবং জাকের আলি সিলেটের বোলারদের উপর চালাতে থাকেন আগ্রাসি ব্যাটিং।

দলীয় ১৪০ রানে নাইম হাসানের বলে বড় শট খেলতে গিয়ে ফ্লেচারের দুর্দান্ত এক ক্যাচে ১২ বলে ২০ করে সাজঘরে ফিরে যান জাকের আলি। তবে উইকেট আগলে রেখে থিসারা পেরেরাকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান ইভান্স। কিন্তু সেখানে বাঁধ সাধেন এবাদত। ২১ রানে মোসাদ্দেকের তালুবন্দি করে ইভান্সের ঝড় থামান এই বোলার।

কিছু সময় ইনিংস স্তিমিত হয়ে পড়লেও মাঠে আবার ঝড় তোলেন ওয়াহাব রিয়াজ। শেষতক রিয়াজ ঝড়ে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুনের ইনিংস থামে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৮২ রানে। পেরেরা অপরাজিত থাকেন ১১ বলে ২৩ করে। আর ওয়াহাব রিয়াজ ৭ বলে করে ১৭।

সারাবাংলা/এনএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন