রবিবার ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

বিদায় অগ্রহায়ণ

ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯ | ৯:২৮ পূর্বাহ্ণ

সিরাজুম মুনিরা, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

আজকের সকালটা বেশ ভালো ছিল। বাতাসে শীতের পরশ, কুয়াশা (হোক না তা ধুলাবালি মাখা) আর মেঘের ফাঁক গলে উঁকি দেওয়া সোনারঙের সূর্য। সব মিলিয়ে চমৎকার শীতের সকাল।

বিজ্ঞাপন

আর হবেই না বা কেন? অগ্রাহায়ণের শেষ দিন আজ। পৌষ কড়া নাড়ছে দরজায়। সকালটা তো এমনই হওয়ার কথা ছিল। কেবল ঢাকার অস্বাস্থ্যকর বাতাস কিংবা স্মগের কথা বাদ দিলে এমন সকালই তো কাম্য।

এরকম সকালে একরাশ দায়িত্ব মাথায় নিয়ে দৌড়ঝাঁপ করতেও ক্লান্ত লাগে না। এরকম সকাল নতুন করে বাঁচার অনুপ্রেরণা দেয়।

বিজ্ঞাপন

উপগ্রহ থেকে পাওয়া তথ্য বলছে, আজ রোববার (১৫ ডিসেম্বর) ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সূর্য থাকবে তার দ্যুতি নিয়ে, তবে বাতাস গত কয়েকদিনের মতোই অস্বাস্থ্যকর। রাতের বাতাসও তাই। তবে রাতে তাপমাত্রা কমবে, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা হতে পারে ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আজ সূর্য উঠেছে সকাল ৬টা ৩৩ মিনিটে, অন্যদিকে রাতের আকাশে চাঁদ উঠবে রাত ৮টা ২০ মিনিটে। সবমিলিয়ে আজ দিনটার দৈর্ঘ্য হবে ১০ ঘণ্টা ৪১ মিনিট। একটা দিনে কত কাজ করার থাকে। এই পৌনে ১১ ঘণ্টায় তার সবটা শেষ করাই হলো চ্যালেঞ্জ।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও এর আশপাশের এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিত অংশ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত।

দেশের আকাশ কিছুটা মেঘলা থাকতে পারে। তবে আবহাওয়া থাকবে শুষ্ক।

আপাতত এটুকুই ছিল আবহাওয়ার খবর। সবাই ভালো থাকুন।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন