বিজ্ঞাপন

কাশ্মির: ইন্টারনেটবিহীন ১৪৫ দিন, কথা রাখেনি বিজেপি

December 27, 2019 | 10:35 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লাদাখের কারগিলে শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) ইন্টারনেট সেবা পুনরায় চালু হলেও, ইন্টারনেট ফিরে আসেনি কাশ্মিরে। টানা ১৪৫ দিন ইন্টারনেটবিহীন আছেন এই উপত্যকার মানুষেরা। কাশ্মিরের প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কবে থেকে ইন্টারনেট চালু হবে তা ঠিক বলা যাচ্ছে না। খবর দ্য হিন্দু।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, চলতি বছরের আগস্টের ৫ তারিখে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের সময় কেন্দ্রীয় ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) সরকারের নির্দেশক্রমে ইন্টারনেটা সেবা বন্ধ করে দিয়ে জরুরি অবস্থা জারি করা হয় জম্মু-কাশ্মির অঞ্চলে। তারপর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়া সাপেক্ষে ইন্টারনেট পুনরায় চালু করার প্রতিশ্রুতি দিলেও, তা রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে বিজেপি সরকার।

কাশ্মিরের প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষ দ্য হিন্দুকে জানিয়েছে, ‘ইন্টারনেট সেবা চালু করার ব্যাপারে আমরা কোনো প্রতিশ্রুতি দিইনি’।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, লাদাখের কারগিল জেলায় মোবাইল ও ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট খুলে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) ধর্মীয় নেতাদের পক্ষ থেকে তাদের অনুসারীদের প্রতি আহবান জানানো হয়েছে, যেন তারা ইন্টারনেটের অপব্যবহার না করে।

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব জানিয়েছিলেন, কাশ্মিরে পর্যায়ক্রমিকভাবে ইন্টারনেট সেবা চালু করা হবে। ইতোমধ্যেই পর্যটকদের জন্য হোটেলগুলোতে ইন্টারনেট সেবা চালু করার কাজ চলছে। নিরাপত্তা বিভাগ থেকে সবুজ সংকেত পাওয়া সাপেক্ষে কাশ্মিরের স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ইন্টারনেট সেবা চালু করার উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত, ইন্টারনেটবিহীন থাকার কারণে কাশ্মিরের অধিবাসীদের স্বাভাবিক যোগাযোগ ব্যাহত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এবং মুখ থুবড়ে পড়েছে ব্যাংকিং ও ব্যবসা খাত। এ অবস্থা উত্তরণের জন্য জরুরিভিত্তিতে ইন্টারনেট সেবা চালু করার দাবি তুলেছেন কাশ্মিরের অধিবাসীরা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন