বিজ্ঞাপন

চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক ঘটকের পৈতিৃক ভিটা সংরক্ষণের দাবি

January 2, 2020 | 2:34 am

রাবি করেসপন্ডেন্ট

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়: বরেণ্য চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক ঘটকের পৈতিৃক ভিটা সংরক্ষণ এবং সেখানে একটি চলচ্চিত্র কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মানববন্ধন হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে রাবি চলচ্চিত্র সংসদ ও ম্যাজিক লন্ঠনের উদ্যোগে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে ঋতিক কুমার ঘটক চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি ডা. এফ এম এ জাহিদ বলেন, ‘আমরা যদি ঋত্বিক ঘটকের পৈতৃক ভিটা রক্ষা করতেই না পারি তাহলে আমাদের শিক্ষিত হয়ে কী লাভ। আমরা চাই কিংবদন্তি চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক ঘটকের পৈতৃক ভিটায় চলচ্চিত্র কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা হোক। এটা আমাদের আজকের আন্দোলন নয়। আমরা প্রায় ১২ বছর ধরে এই আন্দোলন করছি। দাবি না আদায় হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।’

বিজ্ঞাপন

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে নাট্যব্যক্তিত্ব ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক মলয় কুমার ভৌমিক বলেন, ‘আমরা এ ধরনের আয়োজন শহরে বা বিশ্ববিদ্যালয়ে এর আগেও বহুবার করেছি। কিন্তু কষ্টের বিষয় হচ্ছে এই যে, যখন আমাদের দেশ বা উপমহাদেশের প্রাজ্ঞ ব্যক্তিরা রাজশাহী আসেন তারা কবি রজনীকান্ত সেনের বাড়িটি দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। উপমহাদেশের বিজ্ঞানসম্মত ইতিহাস সূচনা করা অক্ষয় কুমার মৈত্রেয়ের বাড়িটি দেখতে চান। সেইসঙ্গে উপমহাদেশের খ্যাতিমান চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক কুমার ঘটকের বাড়িটি দেখতে চান। তখন আমরা তাদের সেই বাড়িগুলোতে নিয়ে যাই বটে কিন্তু যখন তারা বাড়িগুলোর চেহারা দেখে তখন লজ্জায় আমাদের মাথা নিচু হয়ে যায়। আমি জানি না যারা সরকারে আছেন তাদের লজ্জা লাগে কিনা! আমরা সংস্কৃতিকর্মীরা রাজনেতিক কর্মীদের সঙ্গে একসাথে চলতে পারি না বলেই আজকের এই দুর্দশা।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘শুধু ঋত্বিক কুমার ঘটকের পৈতৃক বাড়ি নয়, এ রকম যে স্থাপনাগুলো আছে, যা আমাদের জাতীয় জীবনকে পরিগঠন করতে পারে সেগুলো সংরক্ষণ করা জরুরি। আমি আশা করছি, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় আমাদের এই দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করবে এবং ঋত্বিক কুমার ঘটকের বাড়ি পুনরুদ্ধার করে সেখানে অন্তত একটি ইনস্টিটিউট বা স্টুডিও যেটা চলচ্চিত্র চর্চার সঙ্গে যুক্ত মানুষের কাজে লাগবে- এমন একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার উদ্যোগ নেবে।

বিজ্ঞাপন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি ড. সাজ্জাদ বকুলের সঞ্চালনায় আরও বক্তৃতা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক রহমান রাজু, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কাজী মামুন হায়দার, ফোকলোর বিভাগের সহকারী অধ্যাপক অমিরুল ইসলাম, বরেন্দ্র ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি সুলতানুল ইসলাম, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী রাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক রনজু হাসান, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন রাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক মহাব্বত হোসেন মিলন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী মাহমুদ সাকী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি আব্দুল মজিদ অন্তর প্রমুখ।

সারাবাংলা/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন