বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশে মোবাইল উৎপাদন করলে ১০% আর্থিক সহায়তা: মোস্তাফা জব্বার

February 20, 2018 | 4:32 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা চাইছি বাংলাদেশে মোবাইল উৎপাদন হোক। এর জন্য মোবাইল কোম্পানিগুলোকে সবরকম সহায়তা আমরা করব। বাংলাদেশে তৈরি ডিভাইস বাইরে রপ্তানি করা হলে ১০ ভাগ আর্থিক সহায়তা দেব। আশা করি '১৮ সালের শেষে ফোর জি ডিভাইসের অভাব হবে না।

আজ (মঙ্গলবার) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি রবি আজিয়াটা লিমিটেড ও এয়ারটেল বাংলাদেশের ফোরজি তরঙ্গ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

দেশের প্রতি ইঞ্চি ডিজিটাল করার প্রত্যয় নিয়ে টেলিযোগাযোগ কোম্পানি দুটি ফোরজির যাত্রা শুরু করল।

রবির সিইও মাহাতাব উদ্দিন বলেন, এই ফোরজি তরঙ্গ শুধু শহরতান্ত্রিক নয়। এটা প্রতিটি গ্রামে কাজ করবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি ফোর জির বিস্তারের সুবিধার জন্যে, সরকারকে ফোরজি ডিভাইসের ডিউটি কমানোর অনুরোধ করেন। তিনি আরও অনুরোধ করেন সিম বদলানোর ট্যাক্স তুলে নেওয়ার। যেন সবাই এই ফোরজির সুবিধা লাভ করে।

এ অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে মোস্তাফা জব্বার বলেন, কাকতালীয়ভাবে আমি মন্ত্রিত্ব নেওয়ার পরে প্রতিদিন নতুন নতুন কিছু হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন ইন্টারনেটের মহাসরণি বানানোর জন্য, আমি সে কাজ করছি।

বিজ্ঞাপন

সিম পরিবর্তনের ট্যাক্স কমানোর বিষয়ে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, ‘২০০৯ সাল থেকে ইন্টারনেটের উপর থেকে ১৫% ভ্যাট সরানোর কথা বলে আসছি। ‘১৭ সালে অর্থমন্ত্রী বলেছেন উনি এটা বিবেচনা করবেন। আমি আবার এ দাবি তুলব।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যামসুন্দর, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ ও বাংলাদেশে নিযুক্ত মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূত।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশে মোবাইল উৎপাদন করলে ১০% আর্থিক সহায়তা: মোস্তাফা জব্বার

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে সব রকমের বিভেদ মিটে গিয়েছে। এখন আর শহর-গ্রাম বা নারী-পুরুষ হওয়ার কারণে পিছিয়ে থাকছে না। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সবাই সমান এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নের জন্য নারীর অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতাকে জোর দেন। আইসিটির মাধ্যমে এটা সম্ভব হয়েছে। আমরা আইসিটি ট্রেনিং বাসের মাধ্যমে অনেক নারীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ৪টি প্রকল্প প্রাথমিক তালিকায় আছে, রবি-হুয়ায়ের সহযোগিতায় করা এ আইসিটি ট্রেনিং বাসের প্রকল্পটি সেই শর্ট লিস্টে জায়গা করে নিয়েছে। নতুন ধরনের একটি উদ্ভাবনী চিন্তায় রবি বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে আছে।

তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার করে তৈরি উদ্ভাবনী উদ্যোগের প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী ১০ মিনিট স্কুলের কথা উল্লেখ করেন, যেখানে ৬ লাখের বেশি ছাত্র ছাত্রী পড়াচ্ছে কিন্তু সেখানে কোনো বাহ্যিক অবকাঠামো নেই। এসব উদ্যোগের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তি মানুষে মানুষে বিভেদ মিটিয়ে দিচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যামসুন্দর বলেন, চারটি টেলকো গতকাল লাইসেন্স পেয়েছে। রবিকে ধন্যবাদ আজকেই তা লঞ্চ করে দেওয়ার জন্য।

রবি আজিয়াটা ও এয়ারটেল বাংলাদেশের ফোর জি লঞ্চ করার মাধ্যমে বহুল প্রতীক্ষিত চতুর্থ প্রজন্মের টেলিযোগাযোগ সেবা ফোর-জি যুগে প্রবেশ করল বাংলাদেশ।

গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে দেশের শীর্ষ চার মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স তুলে দেওয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে ফোর জি কার্যক্রম শুরু হয়। ফোর জি তরঙ্গ ব্যবহারের ফলে ইন্টারনেটের গতি প্রায় দ্বিগুণ হবে বলে জানিয়েছে টেলিযোগাযোগ বিশেষজ্ঞরা।

সারাবাংলা/এমএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন