বিজ্ঞাপন

এক মাসের তিন সপ্তাহই ফাঁকা!

January 7, 2020 | 7:20 pm

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র বেশ বড়সড় ক্রান্তিকাল পার করছে। একের পর এক সিনেমা হল বন্ধ হচ্ছে। ২০১৯ পেরিয়ে ২০২০ শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত নতুন কোন ছবি মুক্তি পায়নি। নতুন ছবি মুক্তি পাওয়ার দিন হচ্ছে শুক্রবার। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জানুয়ারি মাসের পাঁচ শুক্রবারের মধ্যে তিনটি শুক্রবারই যাচ্ছে ফাঁকা। বাকি দুই শুক্রবারের জন্য মাত্র দুটি ছবি প্রযোজক সমিতির তালিকাভুক্ত হয়েছে মুক্তির জন্য।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির একজন কর্মকর্তা সারাবাংলাকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আগামী ১০ জানুয়ারি ‘জয়নগরের জমিদার’ ছবি মুক্তি পাবে। আর ২৪ জানুয়ারি মুক্তি পাবে ভারত থেকে আমদানি করা ছবি ‘হুল্লোড়’। এর আগে পরের তারিখে কোন দেশি, বিদেশি ছবি নেই।

বিজ্ঞাপন

এর বাইরে নিয়ামুল মুক্তা পরিচালিত ‘কাঠবিড়ালী’ ছবিটি আগামী ১৭ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়ার কথা। এ প্রসঙ্গে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘ছবিটি গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর ১টি সিনেমা হলে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল। ১৭ জানুয়ারি বড় আকারে মুক্তি দেওয়া হবে। তাই এটিকে সমিতির নিয়ম অনুযায়ী ২০২০ সালের ছবি হিসেবে ধরা হবে না।’

প্রযোজক সমিতির নিয়ম অনুযায়ী তারিখ খালি থাকলে কেউ যদি আগের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবারও আবেদন করে তাহলে মুক্তির অনুমতি পায়। সেক্ষেত্রে তার সেন্সর ছাড়পত্র থাকলেই চলে।

বিজ্ঞাপন

সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘ছবি না থাকার বিষয়টি আমাদের জন্য হতাশার। এ হতাশা কাটানোর জন্য আমরা প্রযোজক সমিতি ১৭ জন প্রযোজককে সদস্যপদ দিয়েছি গত এক মাসে। এ জন্য সদস্য ফি ১ লাখ ২ হাজারের পরিবর্তে আমরা নিচ্ছি মাত্র ১১ হাজার টাকা করে। শর্ত অনুযায়ী তারা যদি ৬ মাসের মধ্যে ছবিগুলো মুক্তি দেয়, তাহলে এ খরা অনেকাংশে কেটে যাবে বলে আমাদের বিশ্বাস। এর বাইরে তো আরও ছবি আছেই।’

এদিকে প্রযোজক সমিতির তালিকা অনুযায়ী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে মুক্তির তালিকায় রয়েছে— হৃদয় ছোঁয়া কথা ও পরানের পাখি; ১৪ ফেব্রুয়ারি ডিটেক্টটিভ ও আমরা একটি সিনেমা বানাবো-পার্ট ১, ২১ ফেব্রুয়ারি বৃদ্ধাশ্রম ও নীলফড়িং। ২৮ ফেব্রুয়ারির জন্য এখন পর্যন্ত কোন ছবি তালিকাভুক্ত হয়নি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এজেডএস/পিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন