বিজ্ঞাপন

উদ্যোক্তা সম্মেলনে যা বললেন আজিজ আহমদ

January 8, 2020 | 1:09 pm

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

ঢাকা: সমাজ থেকে নেওয়া নয়, সমাজকে কিছু দেওয়া যায় এমনভাবেই নিজেকে তৈরি করতে হবে। দেশের তথ্য-প্রযু্ক্তি খাতের তরুণ উদ্যোক্তাদের এমন পরামর্শই দিলেন আজিজ আহমদ।

বিজ্ঞাপন

গত ৪ জানুয়ারি (শনিবার) রাজধানীর মিরপুরে শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে ''নিজের বলার মত একটা গল্প'' প্ল্যাটফর্ম আয়োজিত উদ্যোক্তা সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন তিনি।

বাংলাদেশি আমেরিকান এই আজিজ আহমদ একজন আইসিটি বিশেষজ্ঞ ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের উদ্যোক্তা। তিনি কোডার্সট্রাস্ট গ্লোবাল এর কো-ফাউন্ডার এবং যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আইটি প্রতিষ্ঠান ইউটিসি অ্যাসোসিয়েটস এর সিইও।

বিজ্ঞাপন

নিজের জীবনের সাফল্যের গল্প শোনাতে গিয়ে তিনি বললেন, আমার বাবা একজন প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক ছিলেন। সেখান থেকে আমি আজ ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টে আর্টিফিশিয়াল ইন্টলিজেন্সে ব্যবহারের ভবিষ্যত কর্মকাঠামো নিয়ে কথা বলার সুযোগ পাচ্ছি। ভ্যাটিকানের পোপের আমন্ত্রণে গিয়ে বিশ্ব ফোরামে শুনাতে পারছি কাজের ভবিষ্যত নিয়ে আমার ভাবনা ও সত্যিকারের বিশ্লেষণ। এসব কিছু সম্ভব হয়েছে তার একটাই কারণ, আমার একটা স্বপ্ন ছিলো।

এখানে সামনে যারা রয়েছে তারা প্রত্যেকেই একেকজন উদ্যোক্তা। এখানেও প্রত্যেকের একটি স্বপ্ন রয়েছে। সেটাই আমার কাছে বড় অনুপ্রেরণা। আপনারা সবাই আমার অনুপ্রেরণা। এমন একটি প্ল্যাটফর্মে আসতে পেরে ভীষণ আনন্দিত, বলেন আজিজ আহমদ।

সেরা তরুণ উদ্যোক্তা ইকবাল বাহার জাহিদের কথা বলতে গিয়ে আজিজ আহমদ বলেন, ইকবাল বাহার জাহিদ নিজেই একজন অনুপ্রেরণা। ইকবাল বাহার জাহিদ একটা নাম, একটা সংগ্রাম, একটা অভ্যূত্থান।

প্রতেকটা বিষয়ের একটা শুরু থাকে। আমি মনে করি ''নিজের বলার মত একটা গল্প'' প্ল্যাটফর্ম আয়োজিত এই উদ্যোক্তা সম্মেলনই একটা শুরু। যা প্রত্যেককে অনেক দূরে নিয়ে যাবে।

উপস্থিত সকল উদ্যোক্তাই একদিন ইকবাল বাহার জাহিদের মতো কেউ হবেন সে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী এই বাংলাদেশি আইটি বিশেষজ্ঞ ও উদ্যোক্তা।

একটি লক্ষ্যভিত্তিক জীবন যাপন ও তার জন্য ঝুঁকি রয়েছে এমন কাজে নিজেকে এগিয়ে নেওয়া খুব সহজ বিষয় নয়। এখানে অনেক ব্যর্থতাও থাকবে, অনেক উত্থান-পতন থাকবে। একজন উদ্যোক্তা হিসেবে তা মেনে নিয়েই আমাদের এগুতে হবে, নতুন উদ্যোক্তাদের উদ্দেশে বলেন আজিজ আহমদ।

জীবনের স্বপ্ন যেমন থাকতে হবে, তেমনি জীবনের একটা উদ্দেশ্যও থাকতে হবে। এর পাশাপাশি প্রত্যেককে একটি ভালো মানুষ হতে হবে, বলেন তিনি।

নেতিবাচকতাকে ইতিবাচক দিয়ে নিয়ে যেতে আমাদের কাজ করতে হবে, আর সে উদ্দেশ্য সামনে রেখেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

বিশ্বখ্যাত উদ্যোক্তা ওয়ারেন বুফেকে উদ্ধৃত করে তরুণদের উদ্দেশ্যে আজিজ আহমদ বলেন, বুদ্ধিমত্তা ও কঠোর পরিশ্রমের পাশাপাশি আমাদের সৎ ও নৈতিক গুনাবলীর অধিকারী হতে হবে। সততা না থাকলে এবং সমাজের প্রয়োজনে কাজে না লাগলে আমরা খুব বেশি দূরে যেতে পারবো না।
কোডার্স ট্রাস্ট গ্লোবাল এর কাজের দিকগুলো তুলে ধরতে আজিজ আহমদ বলেন, বাংলাদেশে তথা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মানব পূঁজি সৃষ্টিতে কোডার্স ট্রাস্ট কাজ করে যাচ্ছে। কাজের মধ্য দিয়ে সমাজে প্রভাব রাখতে, অবদান রেখে যেতে সচেষ্ট রয়েছে কোডার্স ট্রাস্ট।

তরুণ উদ্যোক্তদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, একসঙ্গে বেড়ে উঠতে আমাদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে। সে জন্য আমাদের প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু দায়িত্ব রয়েছে। আমাদের নিজেদের জন্য, আমাদের প্রজন্মের জন্য, ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য, প্রজন্মের পর প্রজন্মের জন্য আমাদের কাজ করতে হবে।

সারাবাংলা/এমএম

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন