বিজ্ঞাপন

ফিটনেসে কমতি নেই সাদদের, কাউন্টারে আক্রমণের ছক জেমির

January 9, 2020 | 5:14 pm

ঢাকা: ইংল্যান্ড থেকে ঢাকায় বুধবারই পৌঁছেছেন প্রধান কোচ জেমি ডে। রাতে মিটিং করে আজ থেকে দলের অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন এই ইংলিশ কোচ। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে প্রথম ম্যাচ ফিলিস্তিনকে নিয়ে ছক কষছেন জেমি। অতীত অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে শক্তিশালী ফিলিস্তিনকে রুখে দিতে ডিফেন্স ও কাউন্টার আক্রমণ নিয়ে কাজ করেছেন কোচ।

বিজ্ঞাপন

এদিকে ফুটবলারদের ফিটনেস নিয়ে কোনও সমস্যা দেখছেন না জেমি। বললেন, ‘ফিটনেস নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। যেহেতু তারা ফেডারেশন কাপে ছিল।’

তাই মনোযোগটা সরাসরি ম্যাচের কৌশল নিয়ে এঁটেছেন কোচ, ‘আজকে আমরা ফরোয়ার্ড পর্যায়ে কিভাবে খেলা যায় সেটা অনুশীলন করেছি। ডিফেন্স ভেঙে কাউন্টার অ্যাটাকে কিভাবে গোলের সুযোগ তৈরি করা যায় সেটা দেখেছি। এই কয়দিন আমরা অ্যাটাকিংয়ের উপরে জোর দিবো। বক্সের ভেতরে খেলা যায় কিভাবে সেটার চেষ্টাটাই করবো।’

বিজ্ঞাপন

প্রথম ম্যাচেই ১৫ জানুয়ারি ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিনকে পাচ্ছে বাংলাদেশ। ১৯ তারিখ লঙ্কানদের সঙ্গে দ্বিতীয় ম্যাচ। টুর্নামেন্টের ফাইনালে যেতে হলে গোলের বিকল্প নেই মনে করেন জেমি, ‘জিততে হলে আমাদের গোল করতে হবে। সেমি বা ফাইনালে যেতে হলে গোলের প্রয়োজন দরকার।’

গত আসরে ফিলিস্তিনের কাছে ২-০ ব্যবধানে হেরে সেমি থেকে বিদায় নিয়েছিল বাংলাদেশ। এবার অতীত অভিজ্ঞতার সঙ্গী করে ফিলিস্তিনকে রুখে দিতে চান এই ইংলিশ কোচ, ‘আমরা গত বছর তাদের সাথে সেমিতে খেলেছি। তারা ভাল দল হলেও আমাদের চেষ্টার কোনও ত্রুটি থাকবে না। খেলোয়াড়দের জন্যও এটা চ্যালেঞ্জ হবে কেননা বিভিন্ন মহাদেশের ভিন্ন ভিন্ন দল আসছে।’

টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের টার্গেট আপাতত দলকে নিয়ে গ্রুপ পর্ব পেরিয়ে সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করা এমনটাই মনে করেন জেমি, ‘কম্পিটিশন অনেক বেশি হবে। সব দলই চাইবে টুর্নামেন্ট জিততে। আমাদের প্রথম টার্গেট হচ্ছে গ্রুপ পর্ব থেকে সেমিতে যাওয়া। সেখানে বুরুন্ডিকে পেতে পারি। কেননা র‌্যাঙ্কিংয়ে ওরাই আরেকটি গ্রুপে সবচেয়ে এগিয়ে। কিন্তু ফুটবলে সবকিছু এতো সহজ নয়। খেলোয়াড়দের প্রবল ইচ্ছা আছে। আশা করি ভাল কিছু হবে।’

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন