বিজ্ঞাপন

মোনাজাতে লাখো মানুষ, মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ-শান্তি কামনা

January 12, 2020 | 12:35 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ ও শান্তি কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হয়েছে এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশে তাবলিগ জামাতের প্রধান মারকাজ কাকরাইলের মুরুব্বি হাফেজ মাওলানা জোবায়ের আহমদের অনুসারীদের অংশগ্রহণে টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেয় লাখো মানুষ। মাওলানা জোবায়ের নিজেই মোনাজাত পরিচালনা করেন।

আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ভোর থেকেই ঢাকা ও দূর-দূরান্তের জেলা থেকে মুসল্লিরা ইজতেমাস্থলে আসতে শুরু করেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে মুসল্লিদের পদভারে মুখর হয়ে ওঠে ইজতেমা প্রাঙ্গণ। ইজতেমাস্থল ও আশেপাশের মুসল্লিরা অফিস, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান, বাসার ছাদে দাঁড়িয়ে হাত তুলে মোনাজাত করেন।

বিজ্ঞাপন

মোনাজাতে লাখো মানুষ, মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ-শান্তি কামনা

মুসল্লিদের ভিড় বাড়ায় গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা দক্ষিণে বিমানবন্দর থেকে টঙ্গীমুখী ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে সব ধরনের যানবাহন বন্ধ করে দেওয়া হয়। মোনাজাত শেষে আবার যান চলাচল শুরু হয়।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১২ জানুয়ারি) বাদ ফজর ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের উদ্দেশে হেদায়েতি বয়ান পেশ করেন পাকিস্তানের মাওলানা জিয়াউল হক। আখেরি মোনাজাতের আগে বিশেষ বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইবরাহিম দেওলা। আর আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের তাবলিগের প্রধান মারকাজ কাকরাইলের মুরব্বি হাফেজ মাওলানা জোবায়ের আহমদ।

মোনাজাতে লাখো মানুষ, মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ-শান্তি কামনা

বিজ্ঞাপন

এ দিকে মোনাজাত উপলক্ষে ১৬টি বিশেষ ট্রেন সার্ভিসের ব্যবস্থা করা হয়। সব আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেন টঙ্গীতে যাত্রা বিরতি করে।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। ১৭ থেকে ১৯ জানুয়ারি হবে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা অংশ নেবেন দ্বিতীয় পর্বে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন