বিজ্ঞাপন

বিপিএলে সেরা বোলিং রেকর্ড আমিরের

January 13, 2020 | 10:38 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

বিপিএলে এক ইনিংসে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ডটি গত ছয় বছর একচ্ছত্র দখলে রেখেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক পেসার মোহাম্মদ সামি। সপ্তম আসরে এসে তা ভেঙে দিলেন তারই স্বদেশী পেসার মোহাম্মদ আমির। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে খুলনা টাইগার্সের এই পেসার ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন ৬ উইকেট। যা বিপিএলের ইতিহাসে সেরা।

বিজ্ঞাপন

২০১২ সালে বিপিএলের প্রথম আসরে মোহাম্মদ সামি ৩.২ ওভারে মাত্র ৬ রানের বিনিময়ে শিকার করেছিলেন ৫ ব্যাটসম্যানকে।

এক ইনিংসে তৃতীয় সেরা বোলিংয়ের রেকর্ডটিও এই আসরেই হয়েছে। গেল ৩০ ডিসেম্বর এই রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষেই টি-টোয়েন্টিতে নিজের সেরা ও বিপিএলে তৃতীয় সেরা বোলিং ইনিংসের রেকর্ড গড়েন যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুনের পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। ৩.৪ ওভারে ৮ রানের বিনিময়ে তার শিকার ছিল ৫টি উইকেট,

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৩ জানুয়ারি) প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে খুলনার দেওয়া ১৫৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নামা রাজশাহীতে প্রথমেই আঘাত হানেন আমির। মাত্র ২ রানে ওপেনার লিটন দাসকে করেন ক্লিন বোল্ড। আরেক ওপেনার আফিফকে ১১ রানে পাঠিয়ে দেন মুশফিকুর রহিমের সুরক্ষিত গ্লাভসে।

তিনে নেমে ব্যাটে ঝড় তোলা স্বদেশী শোয়েব মালিককে ৮০ রানে তুলে দেন বদলি খেলোয়াড় রহমানুল্লাহ গুরবাজের হাতে। চারে আসা অলরাউন্ডার অলোক কাপালিকে তো রানের খাতা খোলারই সুযোগ দিলেন না। পরিণত করলেন শামসুর রহমানের ক্যাচে।

আমির তোপ থেকে রক্ষা পাননি অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেলও। অলোক কাপালির মতো তাকেও শূণ্য হাতে ফিরিয়েছেন এই বাঁহাতি পেসার। শেষ আঘাতটি হানেন ১৮ তম ওভারে। টেল এন্ডার তাইজুল ইসলামকে ১২ রানে পুড়ে দেন রবি ফ্রাইলিংকের মুঠোয়। আর তাতেই রচিত হলো বিপিএলের ইতিহাসের সেরা বোলিং ফিগার। নামের পাশে যুক্ত হলো ছয় ছয়টি উইকেট। সেই সঙ্গে দল নিশ্চিত করল বঙ্গবন্ধু বিপিএলের ফাইনাল।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন