বিজ্ঞাপন

সরস্বতী পূজার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা উচিত: ইশরাক

January 14, 2020 | 12:23 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেছেন, ‘একজন ক্যান্ডিডেন্ট হিসেবে আমি চাই সরস্বতী পূজার বিষয়টি যেন গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচেনা করা হয়।’ মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) ঢাকা দক্ষির সিটির ৭৫নং ওয়ার্ডের নন্দীপাড়া-ত্রিমোহনী এলাকায় পঞ্চম দিনের গণসংযোগ শুরুর সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের দিন সনাতন ধর্ম্বালম্বীদের সরস্বতী পূজা পড়েছে, যে কারণে নির্বাচন পেছানোর দাবিসহ আদালতে রিটও করা হয়েছে— এসব বিষয় নিয়ে জানতে চাইলে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইশরাক বলেন, ‘আমি বলবো নির্বাচন কমিশন যেন বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখে।’

তিনি বলেন, ‘একজন মুসলমান হিসেবে ঈদ বা অন্য কোনো উৎসবের দিনকে আমরা নির্বাচনের দিন হিসেবে নিতে পারতাম না। তেমনি সনাতন ধর্ম্বালম্বীরাও চাইবেন এই দিনটি নির্বাচন মুক্ত থাক। এজন্য বলছি বিষয়টি যেন গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হয়। যদিও বিষয়টি এখন আদালত দেখছে, তাই এ ব্যাপারে আমাদের বেশি কিছু বলার নেই।’

বিজ্ঞাপন

ইশরাক বলেন, ‘গত ১৩ বছর ধরে দেশকে তিলে তিলে ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। দেশে গণতন্ত্র নাই, কারও কথা বলার অধিকার নাই।

তিনি বলেন, ‘উন্নয়নের নামে ধোয়া তোলা হচ্ছে। কিন্তু কোনো উন্নয়ন আমরা দেখছি না। ঢাকা আজ সবচেয়ে দুষিত শহর, বসবাসের সবচেয়ে অযোগ্য শহরের তালিকায় এক নম্বর।’

উন্নয়নের আশ্বাস দিয়ে ইশরাক বলেন, ‘আমি এ এলাকার রাস্তাঘাটের যে দুর্দশা দেখেছি, যে বেহাল দশা দেখেছি এবং দুই পাশে যে জলাশয় রয়েছে সেগুলোর যে করুণ দশা দেখেছি, তাতে আমরা ভীষণ খারাপ লেগেছে।’

তিনি বলেন, ‘তারা (সরকার) মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠাচ্ছে, অমুক সেতু, তমক সেতু বানাচ্ছে— সবই আসলে দুর্নীতির প্রজেক্ট। একেকটা মেগা প্রজেক্ট হাতে নিয়ে সেখান থেকে লক্ষ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাঠাচ্ছে এবং বিলাসী জীবন-যাপন করছে।’

‘আর বাংলাদেশের সাধারণ নাগরিকের দুর্দশা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আমি প্রতিজ্ঞা করতে চাই, আগামী ৩০ তারিখে যদি আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন, তাহলে আপনাদের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার যে আন্দোলনে রয়েছি, সেটিকে আমরা চূড়ান্ত লক্ষ্যে নিয়ে যাব’— বলেন ইশরাক হোসেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতান, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুর রশিদ হাবিব প্রমুখ।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে নন্দীপড়া ত্রীমোহনী বাজার থেকে প্রচারণা শুরু করেন ইশরাক। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের হাতে ধানের শীষের লিফলেট তুলে দেন তিনি। নানা বয়সী মানুষের কাছে ভোট ও দোয়া প্রার্থনার মাধ্যমে সামনে দিয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন ইশরাক। এ সময় তার সঙ্গে কয়েক শ’ কর্মী-সমর্থক ধানের শীষের পক্ষে শ্লোগান দেন।

আরও পড়ুন: সবকিছু মোকাবিলায় প্রস্তুত আছি: ইশরাক

সারাবাংলা/এজেড/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
নির্বাচনের সংবাদে লিঙ্গ বৈষম্য, অভিযোগ ডেমোক্রেটিক প্রার্থীদেরস্যার, রিমান্ডটা কি কনসিডার করা যায় না: আদালতকে সাহেদ৩০ ফুটবলারের করোনার নমুনা নিল দুই হাসপাতালগাফিলতি পেলে ঠিকাদারকে কালো তালিকাভুক্তির নির্দেশ চসিক প্রশাসকের‘বন্যায় জলাবদ্ধতা কমাতে নদ-নদী ড্রেজিংয়ে সমীক্ষা হচ্ছে’সাবমেরিন ক্যাবল কাটার ঘটনায় পৌর মেয়রের ভাইসহ গ্রেফতার ২বঙ্গবন্ধুর ৩ খুনির বিষয়ে সঠিক তথ্য নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রীআমেরিকার নাগরিকত্ব ছাড়ছেন 'ট্রাম্পে অতিষ্ঠ ' জনগণঢাকা-১৮ ও পাবনা-৪-এ ভোটের তফসিল আগস্টের শেষ সপ্তাহেচুয়াডাঙ্গায় ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা সব খবর...
বিজ্ঞাপন