শনিবার ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

ভারতে অটিজম কনফারেন্সে পুরস্কার জিতল টিম আইএফএমএসএ

জানুয়ারি ১৪, ২০২০ | ১০:৩৪ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

কলকাতার এমিতি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল অটিজম কনফারেন্স কলকাতা-২০২০ এ সায়েন্টিফিক পোস্টার প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেছে বাংলাদেশের টিম আইএফএমএসএ।

বিজ্ঞাপন

বিজয়ী দলের সদস্যরা হচ্ছেন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ৫ম বর্ষের এমবিবিএস শিক্ষার্থী আলভী আহসান, মুমতাহিনা ফাতিমা, রাইসা নাওয়াল এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৫ম বর্ষের এমবিবিএস শিক্ষার্থী মোস্তফা আরাফাত ইসলাম।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

এ বছরের ১০-১২ জানুয়ারি এমিতি বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন দিনব্যাপী এই ২য় আন্তর্জাতিক অটিজম কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। ইন্ডিয়া অটিজম সেন্টারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মি. সুরেশ সোমানির সভাপতিত্বে বিভিন্ন দেশের ৩২ জন স্বনামধন্য গবেষক এতে বক্তব্য রাখেন। কনফারেন্সে প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ড. রোনাল্ড রিফ, কেভিন গার্স, লরি উম্বসহ বিশ্বের সুপরিচিত গবেষকেরা।

প্যানেল আলোচনার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি প্রতিযোগিতামূলক ইভেন্টেরও আয়োজন করা হয় কনফারেন্সটিতে। এরমধ্যে ছিল অটিজম বিষয়ক গবেষণামূলক পোস্টার প্রদর্শনী। পোস্টার প্রদর্শনীতে কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড এ্যাপ্লাইড আর্টস মুম্বাই, প্রদীপ অটিজম ম্যানেজমেন্ট ইন্ডিয়া, প্রমুখ প্রতিষ্ঠান হতে আন্তর্জাতিক গবেষকগণ পোস্টার উপস্থাপনা করেন। সর্বমোট ২৫ টি পোস্টার এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। বাংলাদেশের টিম আইএফএমএসএ প্রথম হয়।

বিজয়ীরা জানান, এটি তাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়।দেশের বাহিরে এরকম একটা কনফারেন্সে এসে প্রথম পুরষ্কার প্রাপ্তি তাদেরকে অনুপ্রাণিত করবে।এছাড়া ভবিষ্যতে মেডিকেল সেক্টরে তারা গবেষণামূলক কাজ করতে আগ্রহী বলে জানান।

পুরষ্কারস্বরূপ বিজয়ী দলকে ১০ হাজার রুপি এবং সম্মাননা স্বারক প্রদান করা হয়।

এছাড়াও কনফারেন্স এ অংশগ্রহণ করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের শাইকা শফিক, শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের সিফাত আলম প্রান্ত এবং গ্রীন লাইফ মেডিকেল কলেজের এস. ইউ. হাবিবা ডেফডীল।

সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোলের হিসাব মতে, প্রতি ৫৯ জনে ১ জন শিশু অটিজমে আক্রান্ত। দ্রুততম সময়ের মধ্যে রোগ নির্ণয় করতে না পারলে দীর্ঘমেয়াদি সমস্যার সমাধান সম্ভব হয় নয়।

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন