শনিবার ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ইং

সুচরিতার সঙ্গে পরিচালকের অশালীন আচরণের অভিযোগ

জানুয়ারি ১৪, ২০২০ | ১১:৩২ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

পরিচালক রফিক শিকদারের বিরুদ্ধে বাজে ব্যবহার ও গায়ে হাত তোলার অভিযোগ তুলেছেন দুই বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী নায়িকা সুচরিতা। এ ঘটনায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে লিখিত অভিযোগও দেন তিনি। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরিচালক রফিক। তার দাবি, গায়ে হাত তোলার মতো কোনো ঘটনাই ঘটেনি। আর দু’জনের মধ্যে ‘তর্কাতর্কি’ হলেও তার সূত্রপাত সুচরিতার মাধ্যমে। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে রফিক শিকদারকে বয়কট করার আহ্বান জানানো হলেও পরিচালক সমিতি জানিয়েছে, বিষয়টি নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কথা বলে তারপর তারা সিদ্ধান্ত নেবেন।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন সুচরিতা।

লিখিত অভিযোগে সুচরিতা বলেন, গতকাল (সোমবার, ১৩ জানুয়ারি) পাবনায় রফিক শিকদার তার ‘বসন্ত বিকেল’ ছবির সেটে সারাদিন আমাকে শুটিং না করিয়ে বসিয়ে রেখেছিল। সন্ধ্যার দিকে তাকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে সে আমার সঙ্গে খারাপ আচরণ করে, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং গায়ে হাত তোলে।

বিজ্ঞাপন

সুচরিতার লিখিত অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

জায়েদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘সুচরিতা মানেই তো ইন্ডাস্ট্রি। তার সঙ্গে রফিক শিকদারের মতো জুনিয়র পরিচালক তর্ক করে, খারাপ ব্যবহার করে— এটা দুঃসাহস।’

জায়েদ জানান, সুচরিতা তাকে সোমবার রাতেই ফোনে ঘটনাটি জানান। তখন তিনি তাকে ঢাকায় এসে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেন।

জায়েদ আরও বলেন, আমরা আজ (মঙ্গলবার) এ ঘটনায় শিল্পী সমিতি জরুরি বৈঠক ডাকি। সেখানে রফিক শিকদারকে বয়কটের আহ্বান করা হয়। আমাদের সব সদস্য এখন থেকে তার সঙ্গে কোনো শুটিং বা ডাবিং করবে না।’ শিল্পী সমিতি এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পরিচালক সমিতিতে চিঠি দিয়েছে বলেও জানিয়েছেন জায়েদ।

ঘটনা সম্পর্কে মৌখিকভাবে শুনেছেন বলে জানিয়েছেন পরিচালক সমিতির সভাপতি মু্শফিকুর রহমান গুলজার ও মহাসচিব বদিউল আলম খোকন। খোকন জানিয়েছেন, পরিচালক রফিক শিকদার এখন পাবনায় আছেন। তিনি ঢাকায় এলে তার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরো ঘটনা শোনা হবে। এ বিষয়ে শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে চিঠি পেয়েছেন জানালেও অফিস টাইমের পরে আসায় তাতে কী লেখা আছে, তা জানেন না বলে জানান খোকন।

এ বিষয়ে জানতে সুচরিতার সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও কথা বলতে পারেনি সারাবাংলা। তবে ফোনে কথা বলেন অভিযুক্ত পরিচালক রফিক শিকদার।

শিকদার নিজেকে পরিস্থিতির শিকার বলে দাবি করে বলেন, সুচরিতা আপুকে সারাদিন শুটিং না করিয়ে বসিয়ে রাখার অভিযোগ ঠিক নয়। তিনি দুপুর পর্যন্ত বেশকিছু দৃশ্যের শুটিংয়ে অংশ নেন। আমাদের কাছে ফুটেজ আছে। আমার পুরো টিম সাক্ষী।

তিনি আরও বলেন, দুপুর ২টার দিকে আমি তাকে বলি, আপু নায়িকার কয়েকটি দৃশ্য আছে, সূর্যের আলো পড়ে গেলে নিতে পারব না। আজকের দিন তো শেষ। তাই আপনি বিশ্রাম করুন। রফিক শিকদারের দাবি, এরপর নাকি সুচরিতা তার ছোট ভাইকে ডেকে দেরি হওয়ার জন্য শিকদারকে গালাগালি করেন। পরে সুচরিতা একই আচরণ করেন শিকদারের সহকারীর সঙ্গে। পরে রফিক শিকদার নিজে গেলে তার সামনেও গালিগালাজ করেন সুচরিতা। রফিক প্রতিবাদ করলে তার সঙ্গে তর্ক হয়। কিন্তু গায়ে হাত তোলার মতো কিছু হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।

রফিক শিকদার জানান, রাতেই তিনি ফোনে পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন ও প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরুকে ঘটনা জানান। শিকদার অভিযোগ করেছেন, ফোনে জায়েদ খান তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন এবং মামলার হুমকি দিয়েছেন।

সারাবাংলা/এজেডএস/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন