বিজ্ঞাপন

নিউমোনিয়ায় প্রয়াত বিশ্বের ক্ষুদ্রতম পুরুষ খগেন্দ্র

January 19, 2020 | 9:57 am

বিচিত্রা ডেস্ক

বিশ্বের ক্ষুদ্রতম পুরুষ ছিলেন খগেন্দ্র থাপা মাগার। গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস নিশ্চিত করেছিলেন এই ক্ষুদ্রতম মানব। নেপালের এই বাসিন্দা আচমকাই নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে গত শুক্রবার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুর সময়ে তার বয়স হয়েছিল ২৭ বছর।

বিজ্ঞাপন

খগেন্দ্র থাপার উচ্চতা ছিল মাত্র ৬৭ দশমিক আট সেন্টিমিটার অর্থাত্‍ দুই ফুট দুই দশমিক ৪১ ইঞ্চি। পোখরায় মা-বাবার সঙ্গেই থাকতেন খগেন্দ্র। সংবাদসংস্থা এএফপিকে দেওয়া সাক্ষাত্‍কারে তার ভাই মহেশ থাপা মাগার জানিয়েছেন, ‘নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল ও। কিন্তু এবার ওর হৃদযন্ত্রও বিকল হয়ে পড়ে।’

২০১০ সালে ১৮তম জন্মদিনের পরই তাকে বিশ্বের ক্ষুদ্রতম পুরুষ হিসেবে ঘোষণা করা হয় গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এ।
খগেন্দ্রর বাবা রূপ বাহাদুর জানিয়েছেন, ‘জন্মের সময়ে ও এতটাই ছোট ছিল যে হাতের তালুর মধ্যে ধরে যেত। ওকে স্নান করানো খুবই সমস্যার ছিল। এতটাই ছোট ছিল ও।’

বিজ্ঞাপন

বিশ্বের ক্ষুদ্রতম পুরুষ হিসেবে সারা জীবনে ১২টির বেশি দেশ ভ্রমণ করেছেন তিনি। ইউরোপ ও আমেরিকার বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাত্‍কারও দিয়েছেন। খগেন্দ্রের মৃত্যুর খবর পেয়ে শোক প্রকাশ করেছেন গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এর এডিটর ইন চিফ ক্রেইগ গ্লেনডে। নেপালের পর্যটন প্রচারের মুখ হয়ে উঠেছিলেন খগেন্দ্র থাপা মাগার। গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এর তরফে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যায় খগেন্দ্র তার ভাইয়ের সঙ্গে গিটার বাজাচ্ছেন, বাইকে উঠছেন এমনকি পারিবারিক দোকানে বসে কাজও করছেন।

সারাবাংলা/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন