শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ৩ রজব ১৪৪১

বিজ্ঞাপন

গ্রেটা থুনবার্গ ও ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাল্টাপাল্টি বক্তব্য (ভিডিও)

জানুয়ারি ২২, ২০২০ | ৫:০৭ অপরাহ্ণ

পরিবেশ ও জলবায়ু ডেস্ক

সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) সম্মেলন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সুইডেনের পরিবেশ আন্দোলনের কর্মী গ্রেটা থুনবার্গ এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন। জলবায়ু ইস্যুতে তারা উভয়েই বক্তব্য রেখেছেন। তাদের বক্তব্যে পাল্টাপাল্টি তথ্য উঠে এসেছে। খবর বিবিসি।

বিজ্ঞাপন

গ্রেটা থুনবার্গ তার বক্তব্যে বলেছেন, আগেও তিনি ডাভোসে এসেছিলেন এবং বলেছিলেন পৃথিবী জলবায়ু পরিবর্তনের আগুনে পুড়ছে। সেই চিন্তা তিনি সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

জবাবে ট্রাম্প তার বক্তব্যে বলেছেন, নৈরাশ্যের কোনো স্থান নেই বর্তমান সময় আশাবাদের।

গ্রেটা আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্যারিস জলবায়ু অ্যাকর্ড থেকে বেরিয়ে যাওয়া সারা দুনিয়ার জন্য আতঙ্কের খবর।

ট্রাম্প বলেন, জলবায়ু নিয়ে অতিসচেতনতা এবং আতঙ্ক ছড়ানো ভবিষ্যত বাণী আমরা মানি না।

গ্রেটা থুনবার্গ অবিলম্বে সারাবিশ্বে জীবাশ্ম জ্বালানীর ব্যবহার বন্ধ এবং এই খাতে ভর্তুকি বন্ধের আহ্বান জানান। ২০৫০ নয় ২০৩০ সম্ভব হলে ২০২১ সালের মধ্যেই এই উদ্যোগ নেওয়া উচিত।

জবাবে ট্রাম্প জানান, বিশ্ব এখন জ্বালানী ভান্ডারের শেষ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। এখন আমাদের যে কোনো ধরনের জ্বালানী ব্যবহার করেই তার সম্ভাব্যতা যাচাই করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের বায়ু পরিস্থিতি পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো অবস্থায় আছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

গ্রেটা বলেন, পৃথিবীতে একদল কার্বন নিঃসরণ করছে আরেকদল তার ফল ভোগ করছে।

ট্রাম্প জানান, যুক্তরাষ্ট্র ইতোমধ্যেই ওয়ান ট্রিলিয়ন গাছ লাগানোর কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। যার মাধ্যমে জলবায়ু পরিস্থিতি নিয়ে সবার মাথাব্যথা কমে যাবে।

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন