শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ৪ রজব ১৪৪১

বিজ্ঞাপন

চীনের গোপন অস্ত্র গবেষণাগার থেকে ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস!

জানুয়ারি ২৭, ২০২০ | ৩:১২ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন ইসরায়েলের সাবেক সামরিক গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তা ও জীবাণু অস্ত্র বিশারদ ড্যানি শোহাম।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২৬ জানুয়ারি) তিনি দ্য ওয়াশিংটন টাইমসকে জানিয়েছেন, উহানে চীনের গোপন জীবাণু অস্ত্র গবেষণা কার্যক্রমের ল্যাবরেটরি থেকে করোনাভাইরাস প্রথম ছড়িয়ে থাকতে পারে।

এর আগে, রেডিও ফ্রি এশিয়া ২০১৫ সালের উহান টেলিভিশনের একটি প্রতিবেদন পুনঃসম্প্রচার করে। সেই প্রতিবেদনে বলা হয়, উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে রয়েছে চীনের সবচেয়ে উন্নত ভাইরাস গবেষণাগার। এখানেই একমাত্র ঘোষণা দিয়ে ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতি সব ভাইরাস নিয়ে গবেষণা চলছে।

বিজ্ঞাপন

ড্যানি শোহাম মাইক্রোবায়োলজিতে ডক্টর ডিগ্রিধারী। ১৯৭০ থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত তিনি ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর হয়ে মধ্যপ্রাচ্যসহ সারাবিশ্বে জীবাণু ও রাসায়নিক অস্ত্র এবং সমরনীতি নিয়ে কাজ করেছেন। তিনি ওয়াশিংটন টাইমসকে জানিয়েছেন, উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজির আড়ালেই জীবাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে বেইজিং।

তিনি জানিয়েছেন, ওই ইনস্টিটিউটের কয়েকটি গবেষণাগারে জীবাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণা চলে, যদিও জীবাণু অস্ত্র নিয়ে চীনের নীতিতে কোথাও এই গবেষণার কথা উল্লেখ করা নেই।

ওয়াশিংটন টাইমসের কাছে পাঠানো একটি ইমেইলে অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল ড্যানি বলেছেন, নীতি অনুসারে জীবাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণা অবশ্যই সামরিক-বেসামরিক যৌথ অংশীদারিত্বের মাধ্যমে সম্পন্ন হতে হবে। চীন এক্ষেত্রে নীতিটি লঙ্ঘন করেছে।

যদিও জীবাণু অস্ত্র নিয়ে গোপন গবেষণার ব্যাপারটি চীনের পক্ষ থেকে কখনোই স্বীকার করা হয়নি। তবে, গত বছর দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক নথিতে গোপন জীবাণু অস্ত্র গবেষণার ব্যাপারে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল।

আরও পড়ুন- করোনাভাইরাস: চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮০, আক্রান্ত তিন হাজার

 

 

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন