বিজ্ঞাপন

মৃত্যুর আগে ধর্ষণের শিকার মানসিক ভারসম্যহীন নারী

February 2, 2020 | 6:40 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর হাইকোর্ট এলাকার ফুটপাত থেকে উদ্ধার মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারীর মৃতদেহে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। রোববার (২ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মৃত ওই নারীর ময়নাতদন্ত করেন ঢামেক ফরেনসিক মেডিসিনের প্রভাষক ডা. প্রদীপ বিশ্বাস।

বিজ্ঞাপন

ডা. প্রদীপ বিশ্বাস বলেন, নিহত নারীর ধর্ষিত হয়েছে এমন আলামত আমরা পেয়েছি। মৃত্যুর আগে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এছাড়া তার পায়ে আঘাত ছিল। যা দেখে ধারণা করা হচ্ছে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি আহত হন। তার হাতে ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত ছিল। এই আঘাত দেখে মনে হচ্ছে, কেউ তাকে আঘাত করেছে। তবু আমরা কিছু পরীক্ষার জন্য রক্ত, ডিএনএ ও ভিসেরা সংগ্রহ করেছি। পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে ফাইনাল রিপোর্ট দেওয়া হবে। এছাড়া তাকে আঘাতের কারণে রক্তক্ষরণ হয়েছে। সেই রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে।

এর আগে শনিবার সকাল সারে ১০টার দিকে শাহবাগ থানা পুলিশ হাইকোর্ট ও কদম ফুয়ারা সংলগ্ন ফুটপাত থেকে অজ্ঞাতনামা হিসেবে মৃতদেহ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়।রোববার দুপুরে ওই মৃতদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন।

বিজ্ঞাপন

শাহবাগ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম জানান, গতকাল সকাল সোয়া ১০টায় হাইকোর্ট ও কদম ফুয়ারা সংলগ্ন ফুটপাত থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তাৎক্ষণিক ভাবে তার নাম পরিচয় জানা যায়নি। তার শরীরে বিভিন্ন জায়গ জখম ও লালচে দাগ রয়েছে। তার গালে কামড়ের দাগ ও স্তনেও আচড়ের দাগ রয়েছে। এছাড়া তার ডান পায়ের ঊরু থেকে পায়ের পাতা পর্যন্ত পুরাতন ব্যান্ডেজ করা ছিল। সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিল বলে ধারণা করছি। পরে কেউ তার সাথে পৈশাচিক ঘটনা ঘটিয়েছে।  সিআইডির মাধ্যমে অপরাধীর পরিচয় সনাক্ত করা সম্ভব হবে।  সন্ধ্যায় নারীর স্বজনরা মৃতদেহ সনাক্ত করেছেন।

মৃত ওেই নারীর বড় ভাই মহসিন উদ্দিন জানান তাদের বাড়ি বরিশালে। তার বোনের নাম মাসুমা আক্তার। চার বছর ধরে সে মানসিক রোগে ভুগছিলো।

বিজ্ঞাপন

মহসিন জানান, গত ২৩ জানুয়ারী সে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। এরপর থেকে তাকে কোথাও পাওয়া যাচ্ছিলনা। গতকাল শনিবার বিকেলেই পুলিশের মাধ্যমে তার মৃত্যুর খবর শুনতে পাই। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে হাসপাতালে গিয়ে তার লাশ শনাক্ত করি। ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা /এসএসআর/জেডএফ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন