বিজ্ঞাপন

‘নেতিবাচক রাজনীতির কারণে বিএনপি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে’

February 2, 2020 | 9:42 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিএনপির ডাকা হরতাল জনগণ ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, এরপরও যদি তারা লজ্জা-শরমের মাথা খেয়ে এই নেতিবাচক রাজনীতি পরিহার না করে, তাহলে তাদের দল জনগণ থেকে আরও বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে। নেতিবাচক রাজনীতির কারণে জনগণের কাছ থেকে প্রত্যাখ্যাত হয়ে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে।

রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিএনপির হরতাল কর্মসূচির প্রতিক্রিয়া জানাতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, হরতাল কালচার বাংলার জনগণ বর্জন করেছে। রাস্তঘাটে যানবাহন সবকিছুই স্বাভাবিক। এর মাধ্যমে প্রমাণ হলো— বিএনপি যে ভুলের রাজনীতি করে, জনগণ সেই রাজনীতি প্রত্যাখ্যান করেছে। এই ভুলের রাজনীতির কারণে কিন্তু মানুষ ভোটকেন্দ্রে আসার প্রবণতা কমিয়ে দিয়েছে।

নির্বাচনের শুরু থেকেই বিএনপি নির্বাচন নিয়ে নেতিবাচক রাজনীতি করেছে দাবি করে নানক বলেন, বিএনপির আচরণ দেখে মনে হয়েছে, তারা জয়ের জন্য নয়, বরং নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা এবং নির্বাচন সম্পর্কে জনগণের মধ্যে ভীতি সঞ্চারের জন্য অংশ নিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তবে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে আসতে আগ্রহী করে তুলতে ভবিষ্যতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে প্রচার-প্রচারণা বাড়ানো এবং নির্বাচনের দিন গণপরিবহন বন্ধের সিদ্ধান্তটিও পুনর্বিবেচনা করা যায় কি না, সে বিষয়ে আলোচনার আহ্বান জানান এই আওয়ামী লীগ নেতা।

নানক বলেন, নির্বাচন-পূর্ব ও নির্বাচনকালীন বিএনপির সন্ত্রাসী চরিত্র নিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সতর্ক থাকায় তারা কোনো সহিংস ঘটনা ঘটাতে পারেনি। হরতালের সিদ্ধান্ত বিএনপি নির্বাচনের আগেই নিয়ে রেখেছিল। সেই অনুযায়ী সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যও তৈরি করা ছিল তাদের— এমনটাই দাবি নানকের।

বিজ্ঞাপন

বিএনপির অভিযোগকে ‘ঢালাও’ অভিহিত করে নানক বলেন, তাহলে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেন এত ভোট পেল কিভাবে? ১১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের ছোট ভাই কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। এ রকম আরও উদাহরণ আছে। এমনকি তাবিথ আউয়াল কিন্তু অনেক কেন্দ্রে বেশি ভোট পেয়েছে আমাদের প্রার্থী আতিকুল ইসলামের চেয়ে।

সংবাদ সম্মেলনে দলীয় মেয়র ও সমর্থিত কাউন্সিলদের উদ্দেশে বলেন নানক

বিজ্ঞাপন

সিটি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীরা জিতলেও বিজয় মিছিল বা উৎসব না করতে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা আছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে দলীয় মেয়র ও সমর্থিত কাউন্সিলদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন নানক।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠিনক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, আফজাল হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপদফতর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় সদস্য শাহাবুদ্দিন ফরাজী, আনিসুর রহমানসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/এনআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন