বিজ্ঞাপন

ভোটের আগের রাতে কাউন্সিলর প্রার্থীকে অপহরণের অভিযোগ ইসিতে

February 4, 2020 | 11:25 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর কবীর চৌধুরীকে (ট্রাক্টর প্রতীক) অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। ভোটের আগের দিন রাতে তাকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় এবং ভোট শেষ হওয়ার পর তার বাসার সামনে অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে যাওয়া হয় বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বরাবর এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী স্বতন্ত্র প্রার্থী আলমগীর কবীর নিজেই।

তার অভিযোগ, প্রতিদ্বন্দ্বী আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. তোফাজ্জল হোসেনের অনুসারীরা তাকে অপহরণ করেছিল। অভিযোগটি তদন্ত ও তদন্ত প্রতিবেদন সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সিইসি’র প্রতি আহ্বান জানান তিনি। একইসেঙ্গ অভিযোগ নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ওই ওয়ার্ডে নির্বাচনের ফলের গেজেট প্রকাশ থেকে বিরত থাকারও দাবি জানান।

বিজ্ঞাপন

সিইসির বরাবর অভিযোগে আলমগীর কবীর লিখেছেন, ‘আমি লন্ডন প্রবাসী, দেশে এসেছি। জনগণের সেবা করার জন্য উত্তর সিটির ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হই। আমাকে নির্বাচনের আগের রাতে, অর্থাৎ ৩১ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১টার পর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. তোফাজ্জল হোসেন (রেডিও প্রতীক) তার ভাড়া করা সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আমার বাসা ভাঙচুর করেছেন। সেই সঙ্গে আমাকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে যায়। নির্বাচনের দিন (১ ফেব্রুয়ারি) নির্বাচন শেষ হওয়ার দুই ঘণ্টা পর কে বা কারা আমাকে অজ্ঞান অবস্থায় বাসার সামনে ফেলে রেখে যায়।’

চিঠিতে তিনি আরও উল্লেখ  করেন, নির্বাচনের দিনে আমার আত্মীয়-স্বজন ও এজেন্ট ভোটারদেরকে ভোটকেন্দ্রে যেতে দেওয়া হয়নি। বিষয়টি থানায় অবগত করলে পুলিশ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলেও অভিযোগ করেন আলমগীর কবীর।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জিএস/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন